কলকাতা, ১২ মেঃ ষষ্ঠ দফার নির্বাচনের মধ্যেই কলকাতায় মুকুল রায়ের গাড়ি তল্লাশি ঘিরে রাজনৈতিক উত্তাপ ছড়াল। যদিও গাড়ি থেকে মুড়ি ও বিস্কুট ছাড়া কিছুই মেলেনি। পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, এটি রুটিন তল্লাশি। তবে মুকুল রায়ের অভিযোগ, তিনি বিজেপির নেতা বলেই ইচ্ছা করে তল্লাশি চালানো হয়েছে। তাঁর আগে এক মন্ত্রী একই রাস্তা দিয়ে গেলেও তাঁর গাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়নি।

এদিন সকালে দিল্লিতে ভোট দিয়ে কলকাতা বিমানবন্দরে নামেন মুকুল রায়। বিমানবন্দর থেকে বের হওয়া মাত্র তাঁর গাড়ি আটকায় কলকাতা পুলিশ। তবে তল্লাশিতে বাধা দেননি মুকুল রায়। উলটে তিনি দাবি করেন, সংবাদমাধ্যমের সামনে তল্লাশি চালাতে হবে। মুকুলবাবু নিজেই সংবাদমাধ্যমকে ডেকে আনেন। গাড়ির ভিতর ড্যাশবোর্ড, ভিতরে থাকা ব্যাগে তল্লাশি চালায় পুলিশ। যদিও আপত্তিজনক কিছুই পাওয়া যায়নি। এরপর কৈখালি মোড়ের কাছে  মুকুল রায়ের গাড়ি ফের আটকায় রাজ্য পুলিশ। ফের চলে তল্লাশি। দু’দফার তল্লাশিকেই রুটিন চেকিং বলে দাবি করেছে পুলিশ। মুকুল রায় অভিযোগ করেন, এই ঘটনা সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। তাঁকে হেনস্থা করতেই পুলিশের এই তল্লাশি। তাঁর সামনে সামনে যাওয়া রাজ্যের এক মন্ত্রীর যে গাড়ি তল্লাশি ছাড়াই ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ তিনি করেছেন তাতে ব্যাগ ভর্তি টাকা ছিল বলেও দাবি করেছেন মুকুল। তবে রাজ্যের কোন মন্ত্রীর গাড়ি ছেড়ে দেওয়া হয়েছে, তা তিনি বলেননি।