স্কুলে দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানির অভিযোগে বিক্ষোভ, পুলিশের লাঠিচার্জ, উত্তাল মালদা।

485

মালদা, ৩১ জুলাইঃ স্কুলের দুই শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীদের গায়ে হাত দেওয়ার অভিযোগে উত্তাল হয়ে উঠল মালদা শহরের একটি হিন্দী স্কুল। অভিযুক্ত শিক্ষকদের ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে পড়ুয়া ও অভিবাবকরা। এই সময় বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ পড়ুয়াদের উপরও লাঠিচার্য করে বলে অভিযোগ। অভিভাবর এবং পড়ুয়াদের পাল্টা আক্রমনে জখম হন তিন জন। জখমদের মধ্যে দুই পুলিশ কর্তা ও একজন অভিভাবক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে পুলিশ। বিক্ষোভকারীরা পিছু হঠলে পুলিশ অভিযুক্ত দুই শিক্ষকে আটক করে নিয়ে যায়।
জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত দুই শিক্ষক বেশ কিছুদিন থেকেই ছাত্রীদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করছিলেন। নানান অছিলায় মেয়েদের গায়ে হাত দিচ্ছিলেন। বুধবার এক পঞ্চম শ্রেণীর পড়ুয়ার সঙ্গে এই ব্যবহার করলে ক্ষুদ্ধ হয়ে ওঠে পড়ুয়ারা। খবর পেয়ে ছুটে আসে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ। পড়ুয়ারা স্কুলের সদর দরজা ভেঙে ভেতরে ঢোকার চেষ্টা করলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। পরে কাঁদানে গ্যাসও ছোঁড়ে পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, বিক্ষোভকারীদের ছোঁড়া ঢিলে জখম হয়েছেন রাজীব পাল ও সুবির সরকার নামে দুই পুলিশ কর্মী। বর্তমানে তারা মালদা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন। মালদা জেলা পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন, ‘স্কুলে লাঠিচার্জ হয়েছে তবে সেটা অভিভাবক এবং কিছু বহিরাগতকে ছত্রভঙ্গ করতে।পড়ুয়াদের ওপর কোনো লাঠিচার্জ হয়নি’। জেলা স্কুল পরিষদ (মাধ্যমিক) তাপস বিশ্বাস বলেন, ‘অভিযুক্ত পড়ুয়ার পরিবার থানায় অভিযোগ দায়ের করলে আমরা অভিযুক্ত দুই জনের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত করা হবে’।