কৃষকদের ‘দিল্লি চলো’ অভিযান রুখতে কাঁদানে গ্যাসের শেল-জল কামান ছুঁড়ল পুলিশ

298

উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: লক্ষ্যে অবিচল কৃষকরা। কৃষি আইন প্রত‌্যাহারের দাবিতে তাঁরা ‘দিল্লি চলো’ অভিযানের ডাক দিয়েছেন। তাঁদের দিল্লি অভিযান রুখতে ১৪৪ ধারা, জল কামান, কাঁদানে গ্যাসের শেল-সবকিছুরই ব্যবস্থা করেছিল পুলিশ, কিন্তু কোনওভাবেই কৃষকদের টলানো যায়নি। সমস্ত বাধা উপেক্ষা করে দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন পঞ্জাবের প্রতিবাদী কৃষকরা।

- Advertisement -

‘দিল্লি চলো’ অভিযানে যোগ দিতে কৃষকরা পঞ্জাব থেকে হরিয়ানা পেরিয়ে দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন। দিল্লি ও হরিয়ানা পুলিশ আন্দোলনকারীদের রোখার বহু চেষ্টা করে। কিন্তু তাতে কৃষকদের দমানো যায়নি। বৃহস্পতিবার দিল্লি অভিযানের প্রথমদিনে কৃষকরা হরিয়ানা পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন।

পঞ্জাবের পাতিয়ালা ও হরিয়ানার আম্বালার সংযোগস্থলে পুলিশ ও প্রতিবাদীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এতে বেশ কয়েকজন পুলিশকর্মী ও কৃষক জখম হন। ব্যারিকেড ভেঙে প্রতিবাদীরা এগোনোর চেষ্টা করলে হরিয়ানা পুলিশ তাঁদের বাধা দেয়। এতে পরিস্থিতি চরম আকার নেয়। হরিয়ানা পুলিশের বাধায় বৃহস্পতিবার রাতে পানিপথ টোলপ্লাজার সামনে জাতীয় সড়কে বিক্ষোভ দেখান কয়েক হাজার কৃষক।

এদিকে, শুক্রবার সকাল হতেই কৃষকরা দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন। প্রতিবাদী কৃষকদের ছত্রভঙ্গ করতে শুক্রবার সকালে হরিয়ানা-দিল্লি সীমানার সিংঘুতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ও জল কামান ছোঁড়ে পুলিশ। এছাড়া এদিন দিল্লি-বাহাদুরগড় হাইওয়ে লাগোয়ো তিকরি সীমানাতেও পুলিশ আন্দোলনকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাসের শেল ও জলকামান ছুঁড়েছে। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়তে দেখা যায় প্রতিবাদীদের।

এদিন সকাল থেকে দিল্লি-গুরুগ্রাম সীমানায় নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। দিল্লি-গুরুগ্রাম ও দিল্লি-জম্মু হাইওয়ের করনালে প্রচুর পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। প্রতিটি গাড়িতে তল্লাশি চলছে। যার জেরে যানজট সৃষ্টি হয়েছে।