তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত বর্ধমানের স্বস্তিপল্লি

128

বর্ধমান: জে পি নাড্ডার রাজনৈতিক কর্মসূচি শেষ হতেই তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তপ্ত হয়ে উঠল বর্ধমানের স্বস্তিপল্লি। রবিবার পুলিশের সামনেই তৃণমূল কর্মীরা বিকাশ মণ্ডল নামে এক বিজেপি কর্মীকে মারধর করেন বলে অভিযোগ বিজেপি নেতৃত্বের। এই ঘটনার পরেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে স্বস্তিপল্লি এলাকা। বিশাল পুলিশ ও র‍্যাফ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্বস্তিপল্লির বিজেপি কর্মী তন্ময় সরখেলের অভিযোগ, শনিবার শহর বর্ধমানে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডার রোড শো হয়। তাতে যোগ দেবার জন্য ওইদিন রাত থেকেই এলাকার বিজেপি কর্মী ও সমর্থকদের হুমকি দেওয়া শুরু হয়। রবিবার সকাল থেকেই এলাকার তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী-সমর্থকরা বিজেপি কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে শাসাতে শুরু করেন। পাশাপাশি এদিন বিকেলে তৃণমূল কংগ্রেসের রোড শো’য়ে যেতে হবে বলে চাপ সৃষ্টি করেন। বিজেপি কর্মীরা এর প্রতিবাদ করলে স্বস্তিপল্লির বাসিন্দা বিজেপি কর্মী বিকাশ মণ্ডলকে মারধর করেন তৃণমূল কর্মীরা।

- Advertisement -

পুলিশের সামনেই তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা বিজেপি কর্মীদের মারধর করা শুরু করেন। পুলিশ সব দেখেও নিষ্ক্রিয় ছিল বলে তন্ময় সরখেলের অভিযোগ। এইসব নিয়ে উত্তেজনা চরমে উঠলে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ ও র‍্যাফ।

তৃণমূল কংগ্রেসের বৈকুণ্ঠপুর ১ নম্বর অঞ্চলের সভাপতি আজাদ রহমান যদিও বিজেপির আনা অভিযোগ অসত্য বলে দাবি করেছেন। তাঁর পালটা অভিযোগ, ‘এদিন বিজেপির পালটা রোড শো’য়ের জন্য তৃণমূল কর্মীরা ওই এলাকায় প্রচার করতে গেলে বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা হামলা চালান। মারধরে চারজন তৃণমূল কর্মী জখম হন। পাশাপাশি বিজেপি কর্মীরা তৃণমূলের দলীয় কার্যালয়েও ভাঙচুর করেছেন বলে অভিযোগ তৃণমূল নেতা আজাদ রহমানের।