প্রলোভন দেখিয়ে সহবাস, অভিযুক্ত অধ্যাপকের শাস্তির দাবিতে পোস্টার

154

রায়গঞ্জ: রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভূগোল বিভাগের এক অধ্যাপকের বিরুদ্ধে নম্বর বাড়িয়ে দেওয়ার পাশাপাশি পিএইচডি করিয়ে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে এক ছাত্রীর সঙ্গে একাধিকবার সহবাসের অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যে ওই ছাত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ে অভিযুক্ত অধ্যাপকের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানিয়ে কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এব্যাপারে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ না নেওয়ায় সরব হয়েছে ডান-বাম প্রতিটি ছাত্র সংগঠন। শুক্রবার অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের সদস্যরা অভিযুক্ত অধ্যাপককে গ্রেপ্তারের দাবিতে রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের গেটে ও দেওয়ালে পোষ্টারে পোষ্টারে ছয়লাপ করে দেয়।

পাশাপাশি, এসএফআইয়ের তরফে এদিন সাংবাদিক সম্মেলন করে অভিযুক্তকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের দাবি জানানো হয়েছে। তৃণমূল ছাত্র পরিষদ নেতৃত্ব পুরো বিষয়টি তদন্ত করে অভিযুক্তের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন। সম্প্রতি ভূগোল বিভাগের স্নাতকোত্তর বিভাগের ওই ছাত্রী অভিযুক্ত অধ্যাপকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রমাণ সহ অভিযোগ পত্র বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ সহ রায়গঞ্জের একাধিক সাংবাদিকের কাছে ডাকযোগে পাঠায়। ওই দিনই মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয়ে যায় সেই ছাত্রীর সঙ্গে অধ্যাপকের হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট। শাস্তির দাবিতে সরব হয়েছে প্রত্যেকে। অভিযুক্তের বিরুদ্ধে প্রমাণ সহ অভিযোগ পত্র উপাচার্য্যের কাছে জমা পড়েছে।বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষাকর্মীদের অধিকাংশ এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে সমগ্র বিষয়টি প্রকাশ্যে আনার দাবি জানিয়েছেন।

- Advertisement -

এবিভিপির জেলা সংযোজক শুভব্রত অধিকারী বলেন, ‘ন্যাক চলছে তাই আমরা আপাতত বিশ্ববিদ্যালয়ের গেট ও দেওয়ালে অভিযুক্ত অধ্যাপককে বহিষ্কার ও গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়ে পোষ্টার লাগিয়েছি। নির্বাচন কমিশনের অনুমতি পেলে আমরা ডেপুটেশন ও বিক্ষোভ প্রতিবাদ কর্মসূচি গ্রহণ করব।’ তৃণমূল ছাত্র পরিষদের জেলা সভাপতি অনুপ কর বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছি। পুরো বিষয়টির তদন্ত করে দোষীকে শাস্তি দেওয়া হোক।’