‘কোরাপ্ট’ বিজেপি প্রার্থী, পোস্টার ঘিরে জল্পনা

79

বর্ধমান: টেট দুর্নীতিতে নাম জড়ানো বিজেপি প্রার্থী বিশ্বজিৎ কুণ্ডুর ছবি সহ তাঁকে ‘কোরাপ্ট’ আক্ষ্যা দিয়ে পোস্টারে ছয়লাপ পূর্ব বর্ধমানের কালনা শহর। সম্প্রতি টেট দুর্নীতি সহ নিজের বউ এবং বউদিকে চাকরি দেওয়া প্রসঙ্গে বিস্ফোরক স্বীকারোক্তি করেছিছিলেন তিনি। সংবাদপত্রে প্রকাশিত সেই স্বীকারোক্তির কাটিং তুলে ধরা হয় সেই পোস্টারে। ভোট আবহে এমন পোস্টার ঘিরে তুমুল শোরগোল পড়েছে রাজনৈতিক মহলে। অন্যদিকে, এই পোস্টার কাণ্ডে কালনায় তৃণমূল-বিজেপির তর্জা তুঙ্গে। তবে, কে বা কারা ওই পোস্টার লাগাল তা এখনও স্পষ্ট নয়।

কালনা শহরের চকবাজার সহ বিভিন্ন এলাকায় বিশ্বজিৎ কুন্ডুর ছবি সহ এই পোস্টার নজরে আসে বৃহস্পতিবার। এবিষয়ে রাজনৈতিক মহলের বক্তব্য, টেট নিয়ে বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুণ্ডু যে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন তা নিয়ে বিজেপি-তৃণমূল দুই দলেরই অস্বস্তি বেড়েছে। অন্যদিকে, এই এই টেট দুর্নীতি যে কালনা বিধানসভায় বাম প্রার্থী নীরব খাঁ’র হাত শক্ত করছে তা বলাই বাহুল্য।

- Advertisement -

মাসকয় আগেই কালনার তৃণমূল বিধায়ক বিশ্বজিৎ কুন্ডু গেরুয়া শিবিরে যোগ দেন শুভেন্দু অধিকারীর হাত ধরে। তারপর থেকেই তাঁর বিরুদ্ধে ২০১৪ সালের টেট কেলেঙ্কারির অভিযোগ তুলে সরব হয় তৃণমূল। পাল্টা আক্রমণ শানেন বিশ্বজিৎ কুন্ডুও। তৃণমূলের জেলা সভাপতি তথা মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ, তৃণমূল নেতা তপন চট্টোপাধ্যায়, অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে অনিয়ম করে নিজেদের কাছের লোককে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার অভিযোগ তোলেন তিনি। পাশাপাশি বিশ্বজিৎ বাবু দাবি করেন, একইভাবে তাঁর স্ত্রী ও বৌদি চাকরি পেয়েছেন। এছাড়া তিনি যে ৬২ জনকে চাকরি দিয়েছেন তাঁরা সবাই তৃণমূলের কর্মী। এই খবরই প্রকাশিত হয়েছিল বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে।

এদিনের পোষ্টার কাণ্ডে বিজেপি প্রার্থী বিশ্বজিৎ কুণ্ডু বলেন, ’তৃণমূলের ছেলেরাই এই কাজ করেছে। সেই প্রমাণ তাঁর কাছে রয়েছে। তবে এইসব করে কিছু লাভ হবে না। গতবারের চেয়েও বেশী ভোটে এবার জিতব।’

কালনার তৃণমূল প্রার্থী দেবপ্রসাদ বাগ জানিয়েছেন, প্রচারের আলোয় আসতে বিজেপি প্রার্থী নিজেই হয়তো এইসব পোস্টার লাগানোর করাচ্ছেন। আবার এমনটাও হতে পারে বিজেপির আদি লোকজন যারা বিশ্বজিৎ কুণ্ডুকে প্রার্থী হিসাবে মানতে পারেননি তারা এমন ঘটনা ঘটাচ্ছেন।