লকডাউনে কার্যত বিনা চিকিৎসায় মৃত্যু হল চারবারের এই বাম বিধায়কের

100

খড়িবাড়ি: লকডাউনে উপযুক্ত চিকিৎসা না করাতে পারায় মৃত্যু হল প্রাক্তন সিপিএম বিধায়ক প্রকাশ মিনজের। দীর্ঘ রোগভোগের পর শুক্রবার রাতে মারা যান টানা ২০ বছর বিধায়ক থাকা এই বাম নেতা।

বামফ্রন্ট সরকারের আমলে পরপর চারবার সিপিআইএমের টিকিটে ফাঁসিদেওয়া থেকে বিধায়ক হয়েছিলেন প্রকাশ মিনজ। ১৯৮৭ সালে প্রথম বিধায়ক নির্বাচিত হন তিনি। এরপর ১৯৯১, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালের বিধানসভার নির্বাচনে তিনি এই কেন্দ্র থেকে জয়ী হন। এরপর থেকে তিনি বেশকিছু দিন দলীয় কাজকর্মের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। মৃত্যুর আগে পর্যন্ত তিনি সিপিএমের দার্জিলিং জেলা কমিটির সদস্য ছিলেন। ২০১১ সাল থেকেই ব্লাড সুগার ও উচ্চ রক্তচাপজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন। সম্প্রতি তাঁর কিডনির সমস্যা ধরা পড়ে। কিন্তু করোনার আবহে লকডাউন পরিস্থিতিতে উপযুক্ত চিকিৎসার জন্য তাঁকে রাজ্যের বাইরে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হচ্ছিল না বলে পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে। অবশেষে শুক্রবার রাত সাড়ে দশটা নাগাদ খড়িবাড়ি থানঝোরা চা বাগানের বাড়িতে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী সহ একমাত্র পুত্র, পুত্রবধূ ও এক নাতিকে রেখে যান। তাঁর ছেলে রাজেশ মিনজের আক্ষেপ, লকডাউনের জন্য বাবাকে চিকিৎসার জন্য বাইরে নিয়ে যাওয়া যায়নি।

- Advertisement -

প্রয়াত প্রাক্তন বিধায়কের মৃত্যু সংবাদ পেয়ে শনিবার সকাল থেকে তাঁর থানঝোরা চা বাগানের বাড়িতে আত্মীয়-পরিজন সহ সিপিএমের স্থানীয় কর্মী ও সমর্থকরা শেষ শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত হন। তবে সিপিএমের জেলা কিংবা রাজ্যস্তরের কোনও নেতা শেষ শ্রদ্ধা জানাতে না আসায় অনেক দলীয় কর্মী বিষয়টির সমালোচনা করেন। তবে তাঁরা প্রকাশ্যে মুখ খুলতে চাননি। শনিবার দুপুর দেড়টা নাগাদ খ্রিস্ট ধর্মমতে খড়িবাড়ির ধুপিভিটা গ্রামে তাঁদের পারিবারিক কবরস্থানে প্রাক্তন বিধায়ককের শেষকৃত্য সম্পন্ন করা হয়। সিপিএমের খড়িবাড়ি এরিয়া কমিটির তরফে প্রায়ত প্রকাশ মিনজের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করা হয়।