‘বাংলায় বিজেপিই সরকার বানাবে’, প্রশান্ত কিশোরের অডিও ক্লিপ প্রকাশ্যে আনল বিজেপি

154

কলকাতা: এবার অডিও ক্লিপ বিতর্কের জেরে বিপাকে তৃণমূলের পরামর্শদাতা প্রশান্ত কিশোর। জোর গলায় এতদিন প্রশান্ত দাবি করে এসেছেন পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির প্রাপ্ত আসন দুই সংখ্যা পেরোবে না। কিন্তু সম্প্রতি বিজেপির শেয়ার করা অডিও ক্লিপে (এই অডিও ক্লিপের সত্যতা যাচাই করেনি উত্তরবঙ্গ সংবাদ) শোনা যাচ্ছে দিল্লির বেশ কয়েক জন সাংবাদিকের সঙ্গে অফ রেকর্ড কথা বলেন পিকে। সেখানেই সরকার কে গঠন করবে জানতে চাওয়া হলে পিকেকে বলতে শোনা যায়, বেশিরভাগ লোকই বলছেন বিজেপি সরকার বানাবে। কারণ যারা বিজেপিকে ভোট দিচ্ছে তারা তো বলছেনই। এছাড়াও বামেদের যে ১০ থেকে ১৫ শতাংশ ভোট আছে তাদেরও দুই তৃতীয়াংশ বলছে বিজেপি সরকার বানাবে। কারণ তাঁদের ধারণা বিজেপি ক্ষমতায় এলে তাঁদেরও দোকান খুলবে।

- Advertisement -

এছাড়াও মোদির জনপ্রিয়তা প্রসঙ্গে ওই অডিও ক্লিপে প্রশান্ত কিশোর জানিয়েছেন, পশ্চিমবঙ্গে মোদি যথেষ্টই জনপ্রিয়। বাংলায় মোদি ও মমতার জনপ্রিয়তা সমান সমান। এমনকি গোটা দেশেই মোদি কাল্ট ফিগারে পরিনত হয়েছেন। বাংলায় ১ কোটি হিন্দি ভাষাভাষি লোক রয়েছে। তাঁরা অনেকেই মোদির ভোটার। তাছাড়াও দলিত ভোটার রয়েছে ২৭ শতাংশ। তারাও অনেকেই বিজেপির সঙ্গেই রয়েছেন। পাশাপাশি রয়েছে ধর্মীয় মেরুকরণ। হিন্দুরা মনে করছেন এতদিনে তাঁদের হয়ে কেউ চিন্তা করছে। তবে কেন বাংলায় ধর্মীয় মেরুকরণর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে সেই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে পিকে জানান, কংগ্রেস, সিপিএম এমনকি তৃণমূলের ধারণা ছিল মুসলিম ভোট সঙ্গে থাকলেই বাংলায় তাঁদের জয় নিশ্চিত। কিন্তু এই ধারণার ফলেই বিপরীত প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে।এছাড়াও তিনি জানিয়েছেন, বাংলায় দু-একটা জেলা বাদ দিয়ে প্রতিটি জেলাতেই বিজেপির মজবুত সংগঠন রয়েছে। মতুয়া ভোটারদের প্রসঙ্গে তাঁকে বলতে শোনা গিয়েছে, মতুয়াদের ৭৫ শতাংশ বিজেপিকে ভোট দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আর বাকি ২৫ শতাংশ পেতে পারে তৃণমূল।

https://twitter.com/PrashantKishor/status/1380747672248705031?s=20

যদিও এই অডিও ক্লিপ বিজেপি প্রকাশ করতেই ফাঁপড়ে পড়েগিয়েছেন প্রশান্ত কিশোর ও তৃণমূল। তড়িঘড়ি টুইট করে প্রশান্ত কিশোর ফের দাবি করেন, এবারে বাংলার নির্বাচনে বিজেপির আসন সংখ্যা ১০০ টপকাবে না। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘আমি খুশি যে বিজেপি নিজেদের নেতাদের তুলনায় আমার ক্লাবহাউস চ্যাটকে বেশি গুরুত্বের সহকারে দেখছে। আংশিক কথোপকথন প্রকাশ করে উত্তেজিত না হয়ে সাহস দেখিয়ে পুরো কথোপকথন প্রকাশ করুক তাঁরা।