মুর্শিদাবাদের দুই কেন্দ্রে নির্বাচন ঘিরে প্রস্তুতি তুঙ্গে

105

মুর্শিদাবাদ: বৃহস্পতিবার মুর্শিদাবাদের জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে একুশের বিধানসভা নির্বাচন। গোটা রাজ্যে একুশের বিধানসভা নির্বাচন মে মাসে যখন অনুষ্ঠিত হয় ঠিক তার আগে জঙ্গিপুরের আরএসপি প্রার্থী প্রদীপ নন্দী এবং সামশেরগঞ্জের কংগ্রেস প্রার্থী রেজাউল হকের মৃত্যুতে ওই দুই কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত হয়ে যায়। দুই কেন্দ্রের প্রার্থীই করোনার কারণে মারা যান।

জাতীয় নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে ৩০ সেপ্টেম্বর ভবানীপুর কেন্দ্রের উপনির্বাচনের সঙ্গে মুর্শিদাবাদের দুই কেন্দ্রে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। সামশেরগঞ্জ কেন্দ্রে কংগ্রেস রেজাউল হকের পরিবর্তে ওই কেন্দ্রে নতুন করে প্রার্থী করেছে জৈদুর রহমানকে এবং জঙ্গিপুর কেন্দ্রে আরএসপি প্রদীপ নন্দীর পরিবর্তে প্রার্থী করেছে জানে আলম মিয়াঁকে।

- Advertisement -

জঙ্গিপুর কেন্দ্রে এবারের মূল লড়াই তৃণমূল কংগ্রেসের বিদায়ী বিধায়ক তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী জাকির হোসেনের সঙ্গে বিজেপি প্রার্থী সুজিত দাসেরl ওই কেন্দ্রে আগামীকাল তিনজন নির্দল প্রার্থী সহ মোট ন’জন প্রার্থীর ভাগ্য পরীক্ষা হতে চলেছে। অন্যদিকে, সামশেরগঞ্জ কেন্দ্রে এবারের মূল লড়াই বিদায়ী তৃণমূল বিধায়ক আমিরুল ইসলামের সঙ্গে কংগ্রেস প্রার্থী তথা জঙ্গিপুর তৃণমূল কংগ্রেসের সাংগঠনিক জেলার সভাপতি খলিলুর রহমানের ভাই জৈদুর রহমানের। ভোট প্রচার শুরু হওয়ার পরও জৈদুর রহমান নির্বাচনে লড়বেন কিনা, তা নিয়ে অনিশ্চয়তা ছিল। কিন্তু গত কয়েকদিনে সামশেরগঞ্জে প্রচারে ঝড় তুলেছেন কংগ্রেস প্রার্থী। ওই কেন্দ্রে আগামীকাল একজন নির্দল প্রার্থী সহ মোট আটজন প্রার্থীর ভাগ্য পরীক্ষা হবে।

জঙ্গিপুর পুলিশ জেলার সুপার ওয়াই রঘুবংশী জানান, দুটি বিধানসভা কেন্দ্রের ভোট নির্বিঘ্ন করার জন্য ইতিমধ্যেই ৩৭ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী এসে পৌঁছেছে। এদের মধ্যে ১৮ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হচ্ছে জঙ্গিপুর বিধানসভা কেন্দ্রে এবং ১৯ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন থাকবে সামশেরগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রে।