৫০০ মোমবাতির আলোয় অর্ধনমিত পতাকা, মৃতদের প্রতি শ্রদ্ধা বাইডেনের

114

ওয়াশিংটন: বছরটা সহজ ছিল না কারোর জন্য। করোনা মহামারীর জন্য মৃত মানুষের সংখ্যা পাঁচ লক্ষেরও বেশি। বিশ্বের সবচেয়ে উন্নত দেশ আমেরিকায় সবচেয়ে বড় আঘাত এই পরিসংখ্যান। জর্জ ওয়াশিংটন, আব্রাহাম লিঙ্কনদের দেশ; এর আগে অনেক কঠিন সময়ে দেখেছে। দুটো বিশ্বযুদ্ধ থেকে শুরু করে ভিয়েতনাম যুদ্ধ, সাক্ষী ছিল জঙ্গি হামলারও। কিন্তু এই অতিমারি ভাইরাস মার্কিন ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ট্র্যাজেডি। প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সরকারিভাবে মৃতদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপনের আয়োজন করেছিলেন হোয়াইট হাউসে।

দিন পেরিয়ে সবে সন্ধ্যার আকাশ তখন মার্কিন মুলুকে। ঘড়িতে ৬ বেজে ১৫ মিনিট। ৫০০ মোমবাতির আলোয় অর্ধনমিত জাতীয় পতাকাকে সাক্ষী রেখে নীরবতা পালনের মধ্য দিয়ে করোনায় মৃতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানালেন প্রেসিডেন্ট। এরপর বক্তব্য রাখেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানান, ভাইরাসে যত মানুষ মারা গিয়েছেন এত সংখ্যক মানুষ দুটো বিশ্বযুদ্ধ এবং ভিয়েতনাম যুদ্ধ মিলিয়েও মারা যাননি। সংখ্যাটা অবিশ্বাস্য। তিনি জানান, প্রতিটি সংখ্যা এক একটা পরিবারের কথা বলে। যাঁরা প্রিয়জনকে হারিয়েছেন তাঁদের কষ্ট কোনও কিছুতেই কমার নয়। কিন্তু দেশ পাশে রয়েছে, এটা ভেবে কিছুটা শান্তি পেতে পারেন তাঁরা।

- Advertisement -

এদিন বাইডেন বলেন, ‘মৃতদের কে ডেমোক্র্যাট, কে রিপাবলিক সেটা বড় কথা নয়। সকলেই আমেরিকান। আমার দেশবাসী। তাই এটা গোটা দেশবাসীর কাছে দুঃখের পরিসংখ্যান। এমনিতেই প্রবল তুষার ঝড় এবং ঠান্ডায় গত এক সপ্তাহ ধরে পরিস্থিতি নাগালের বাইরে পৌঁছেছে টেক্সাসে।’ ইতিমধ্যে টেক্সাসের তুষার ঝড় জাতীয় বিপর্যয় ঘোষণা করেছেন প্রেসিডেন্ট। তিনি বার্তা দিয়েছেন কঠিন পরিস্থিতির বিরুদ্ধে একজোট হয়ে লড়াই করার।