প্রশাসনের অভিযানের পরও নাগালের বাইরে আলুর দাম

289

দিনহাটা: দিনহাটা শহরের বিভিন্ন বাজারে আলু সহ অন্য সবজির দাম যাচাইয়ে গত বৃহস্পতিবার অভিযানে নেমেছিল দিনহাটা মহকুমা প্রশাসনের বিশেষ টিম। ঘটা করে অভিযানের পরও মঙ্গলবার মহকুমার একাধিক বাজারে আলুর খুচরো ও পাইকারি দামে বিস্তর ফারাক নজরে পড়েছে। যার ফলে বাসিন্দাদের একাংশ প্রশাসনের ভূমিকাকেই দায়ী করছেন।

গত বৃহস্পতিবার দুপুরে ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট ও এগ্রি মার্কেটিং আধিকারিকের নেতৃত্বে একটি টিম দিনহাটা চওড়াহাট বাজার সহ অন্য বাজার ঘুরে দেখেন। পাশাপাশি তাঁরা হিমঘরগুলিও পরিদর্শন করেন। সেসময় হিমঘর, পাইকারি ও খুচরো বাজার ঘুরে দাম স্বাভাবিক আছে বলেই তাঁরা দাবি করেছিলেন। কিন্তু অভিযানের পাঁচদিন যেতে না যেতেই আলুর দাম ফের একলাফে অনেকটাই বেড়ে গিয়েছে।

- Advertisement -

বাসিন্দাদের একাংশ চাইছেন, প্রশাসন আলুর একটি নির্দিষ্ট দাম বেঁধে দিক। ক্রেতা অলোক চৌধুরির কথায়, ‘সাধারণত লাল ও সাদা আলুর মধ্যে নূন্যতম পাঁচ-ছ’টাকার ফারাক থাকে। আশ্চর্যের বিষয় এদিন দুই প্রকার আলুর দামই সমান ছিল। সাদা ও লাল আলু দুটোই ৩৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে।’

দিনহাটা কৃষিমেলা পাইকার বাজারে এদিন সাদা আলু ২৫ টাকা ও লাল আলু ২৭-২৮ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। খুচরো ও পাইকারি দামে বিস্তর ফারাক নজরে পড়েছে এদিন।

কৃষিমেলা পাইকার বাজার কমিটির সহ সভাপতি মালেকুর রহমান জানান, নতুন আলু বাজারে এলে দাম কিছুটা কমবে।

মহকুমা শাসক শেখ আনসার আহমেদ জানান, মহকুমায় আলু যথেষ্ট পরিমাণে মজুত রয়েছে। তারপরও কীভাবে দামের ফারাক হচ্ছে, তা তিনি বিভিন্ন বাজার ঘুরে যাচাই করে দেখবেন।