পুরোহিতের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার

320

মাদারিহাট: পুরোহিতের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল মাদারিহাটে। সোমবার রাত ৯ টা নাগাদ মাদারিহাট উত্তর ছেকামারির এক বাঁশতলা থেকে দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মাদারিহাট থানার ওসি টিএন লামা জানান, ওই পুরোহিতের নাম ভক্ত দাস শর্মা (৫৪)। তাঁর বাড়ি থেকে ৫০০ মিটার দূরে দেহটি পড়ে ছিল। এটি খুন না হাতির আক্রমণে মৃত্যু তা নিয়ে বনদপ্তর ও পুলিশের মধ্যে টানাপোড়েন শুরু হয়েছে।

জলদাপাড়া জাতীয় উদ্যানের বনাধিকারিক কুমার বিমল বলেন, ওই ব্যক্তিকে খুন করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে এই তথ্যই জানতে পেরেছি। কারণ, ঘটনাস্থলে বা তার আশপাশে হাতি হানার কোনও চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

- Advertisement -

অপরদিকে, জয়গাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কুন্তল বন্দোপাধ্যায় বলেন, ওই ব্যক্তিকে হাতি মেরেছে। মৃতদেহের ধরন দেখে প্রাথমিক ভাবে সেটাই মনে হচ্ছে। যদিও ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলে প্রকৃত কারণ জানা যাবে বলে তিনি জানান।

আবার মাদারিহাট থানার ওসি টিএন লামার অভিযোগ, ঘটনাস্থলে এসে ঘটনা খতিতে দেখার জন্য বারবার বনকর্মীদের আসতে অনুরোধ করা হলেও কেউ আসেননি। মৃতদেহ না দেখে কীভাবে বলে দিচ্ছেন খুন হয়েছে।
যদিও মাদারিহাট থানার ওসি টিএন লামার অভিযোগ খারিজ করে বনাধিকারিক কুমার বিমল বলেন, ঘটনাস্থলে বনকর্মীরা গিয়েছিল। তাঁদের থেকেই এই তথ্য পেয়েছি।

মৃত পুরোহিতের বড় ছেলে প্রকাশ শর্মা বলেন, প্রতিদিনের মতো বাবা সোমবার সন্ধ্যায় এক বাড়িতে দুধ আনতে গিয়েছিলেন। কিন্তু দীর্ঘ সময় বাড়ি না ফেরায় রাত ৯ টা নাগাদ ফোন করি বাবাকে। বাবা শুধু একবার বলেন টিক বাগানে।‌ এরপর খুঁজে পাওয়া যায় দিলীপ ভট্টারাইয়ের সেগুন গাছের প্ল্যান্টেশনের কাছে বাঁশ গাছের নীচে রক্তাক্ত দেহ।