পুরোহিতের রহস্যমৃত্যু, মন্দির থেকে উদ্ধার দেহ

171

রাজগঞ্জ: আমবাড়িতে মন্দির থেকে পুরোহিতের মৃতদেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়াল। মৃতের নাম প্রহ্লাদচন্দ্র সরকার (৭৫)। তাঁকে খুন করা হয়েছে বলে মনে করছে পরিবার ও মন্দির কমিটি। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে আমবাড়ি ফাঁড়ির পুলিশ।

রাজগঞ্জের আমবাড়ি ব্যারেজ এলাকায় শ্রীশ্রী মা গঙ্গা মন্দির সৎসঙ্গ ধামে পুজোর দায়িত্বে ছিলেন স্থানীয় গোকুলভিটার বাসিন্দা প্রহ্লাদ সরকার। সোমবার সন্ধ্যায় মন্দির থেকে তাঁর মৃতদেহ উদ্ধার হয়। পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রহ্লাদ সরকার প্রায় ১৭ বছর ধরে ওই মন্দিরের পুরোহিত হিসেবে রয়েছেন। এলাকাতেই তাঁর বাড়ি ও স্ত্রী-সন্তান থাকলেও প্রায় সারাদিন তিনি মন্দিরেই থাকতেন। রবিবার বাড়ি থেকে মন্দিরে আসেন তিনি। সোমবার সন্ধ্যায় এক ব্যক্তি ওই মন্দিরে গিয়ে তাঁর মৃতদেহ দেখতে পান। ঘটনাটি চাউর হতেই পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়রা ছুটে আসেন। খবর পেয়ে আমবাড়ি ফাঁড়ির পুলিশ মৃতদেহ উদ্ধার করে।

- Advertisement -

মৃতের ছেলে প্রাণকৃষ্ণ সরকার জানান, তাঁর বাবার গলায় ফাঁসের দাগ ছিল। এছাড়াও মৃতদেহের বিভিন্ন জায়গায় আঘাতের চিহ্ন ছিল। তাঁর বাবাকে খুন করা হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। কিছুদিন আগে ওই মন্দিরের দানবাক্স চুরি হয়েছিল। কী কারণে খুন করা হল, তা স্পষ্ট নয়। বিষয়টি লিখিতভাবে পুলিশকে জানানো হয়েছে। একই অভিযোগ করেন মন্দিরের সভাপতি তরল রায়ও। তিনি জানান, মৃতদেহে আঘাতের চিহ্ন দেখে মনে হচ্ছে পুরোহিতকে খুন করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে দোষীদের কঠোর শাস্তির দাবি জানানো হয়েছে।

আমবাড়ি ফাঁড়ির ওসি সজল রায় জানান, পুরোহিতের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। পরিবারের অভিযোগ, ওই পুরোহিতকে খুন করা হয়েছে। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়েছে।