আলিপুরদুয়ারের সব সার্কেলে ইংরেজি মাধ্যমের প্রাথমিক স্কুল হবে

421

আলিপুরদুয়ার : আলিপুরদুয়ার জেলার সব সার্কেলে ইংরেজি মাধ্যমের প্রাথমিক স্কুল তৈরি হবে। জেলার ১২টি সার্কেলেই এই স্কুল তৈরির জন্য প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদে প্রস্তাব পাঠিয়েছে আলিপুরদুয়ার জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ। তবে,  ইতিমধ্যেই জেলায় পাঁচটি প্রাথমিক স্কুলকে ইংরেজি মাধ্যম করা হয়েছে। ওই স্কুলগুলিতে এখন পড়ুয়াদের ভিড় উপচে পড়েছে। অভিভাবকদের মধ্যেও সরকারি ইংরেজিমাধ্যম স্কুল গুলিতে ছাত্র ভরতি করানোর ঝোঁক বাড়ছে। এই  ইংরেজিমাধ্যম স্কুলগুলির সাফল্যকে হাতিয়ার করে এবার ১২টি সার্কেলেই ইংরেজি মাধ্যম স্কুল চালু করার তোড়জোর করছে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ। ডিপিএসসির চেয়ারম্যান অনুপ চক্রবর্তী বলেন, ‘ইতিমধ্যেই জেলায় পাঁচটি প্রাথমিক বিদ্যালয়কে ইংরেজি মাধ্যমে উন্নীত করা হয়েছে। ওই স্কুল গুলিতে এখন পড়ুয়াদের ভিড় উপচে পড়েছে। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি জেলার ১২টি সার্কেলেই একটি করে প্রাথমিক বিদ্যালয়কে ইংরেজি মাধ্যম করা হবে।’
আলিপুরদুয়ার জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ সূত্রে জানা গিয়েছে, আলিপুরদুয়ার শহরের কলেজিয়েট স্কুল, ম্যাকউইলিয়াম আর আর প্রাথমিক বিদ্যালয়,  শান্তিনগর আর আর প্রাথমিক বিদ্যালয়,  ফালাকাটার ২ নম্বর স্টেট প্ল্যান প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বীরপাড়ার লেবার ওয়েলফেয়ার স্কুলটি পড়ুয়ার অভাবে এক সময় প্রায় বন্ধ হতে বসেছিল। কিন্তু ডিপিএসসি এই পাঁচটি স্কুলে গত জানুয়ারি মাস থেকে ইংরেজি মাধ্যমে পঠনপাঠন শুরু করে। ডিপিএসসি লিফলেট বিলি করে, মাইকে প্রচার করে স্কুলগুলি ইংরেজিমাধ্যম করার কথা জানায়। ওই স্কুলগুলির জন্য বেছে বেছে কিছু শিক্ষক-শিক্ষিকাকে ইংরেজিতে পড়ানোর প্রশিক্ষণও দেওয়া হয়। ভরতি প্রক্রিয়া শুরু হতেই স্কুলগুলিতে পড়ুয়াদের ভিড় বাড়ে। একেকটি স্কুলে এখন প্রায় ১২০ থেকে ১৫০জন পড়ুয়া রয়েছে। আরও অনেকে ভরতি হতে আসছে। কিন্তু স্কুলে জায়গা না থাকায় এখন আর নতুন করে কাউকে ভরতি নিতে পারচ্ছে না স্কুল কর্তৃপক্ষ। এরমধ্যে আবার সামনের শিক্ষাবর্ষে নতুন করে ইংরেজি মাধ্যম স্কুলগুলিতে ছাত্র ভরতি করতে অভিভাবকরা যোগাযোগ করতে শুরু করেছে। অভিভাবকদের এই তৎপরতা দেখে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা সংসদ নতুন করে ইংরেজিমাধ্যম স্কুল চালু করার উদ্যোগ নিয়েছে। আগামী শিক্ষাবর্ষে আরও সাতটি স্কুলকে ইংরেজিমাধ্যম করার জন্য রাজ্যের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। আগামী শিক্ষাবর্ষে যাতে সব পড়ুয়াকে ইংরেজিমাধ্যম স্কুলে ভরতি নেওয়া যায় তার জন্য স্কুলগুলিতে একটি করে শ্রেণিকক্ষ বাড়াবার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।
ডিপিএসসি-র চেয়ারম্যান অনুপ চক্রবর্তী বলেন, ‘আমাদের আশা আগামী শিক্ষাবর্ষ শুরুর আগেই নতুন স্কুলগুলির অনুমোদন পেয়ে যাবো। ইংরেজিমাধ্যম স্কুলে ভরতি হতে চায়, এমন সব পড়ুয়াকে ভরতি নেওয়া হবে।

তথ্য- ভাস্কর শর্মা

- Advertisement -