অসহায় বৃদ্ধ দম্পতির পাশে প্রাথমিক শিক্ষক

230

রায়গঞ্জ: অসহায় বৃদ্ধ দম্পতির পাশে দাঁড়ালেন এক প্রাথমিক শিক্ষক। প্রায়দিন আধপেটা খেয়ে দিন পার করছেন রায়গঞ্জ শহরের বৃদ্ধ দম্পতি নারায়ন সাহা ও গীতা সাহা। আয় বলতে তাদের কিছুই নেই। পান না বার্ধক্য ভাতা। র‍্যাশন কার্ড না থাকায় জোটে না চাল। জমিজমা বিক্রি করে দেওয়ার পর মেয়ে ও জামাইয়ের বাড়িতে থাকেন তাঁরা। জামাই সাধ্যমতো তাঁদের দুবেলা খাবার দেন। পাড়া পড়শিরা সুযোগ সুবিধা মতো মাঝেমধ্যে তাঁদের হাতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেন। কিন্তু প্রায়দিন পেট ভরে খেতে পারেন না। টাকার অভাবে চিকিৎসা পর্যন্ত করতে পারছেন না।

এই খবর উত্তরবঙ্গ সংবাদে প্রকাশিত হতেই এগিয়ে আসলেন এক প্রাথমিক শিক্ষক পার্থ সারথী মিত্র। সোমবার তিনি ওই বৃদ্ধ দম্পতির কাছে পৌঁছে তাদের হাতে খাদ্য সামগ্রী, নতুন শাড়ি ও ধুতি তুলে দেন। পার্থবাবু জানান, উত্তরবঙ্গ সংবাদে বৃদ্ধ দম্পতির এমন অবস্থা জানতে পেরে সামান্য খাদ্য সামগ্রী ও বস্ত্র তুলে দিলাম।

- Advertisement -

কোভিডে আক্রান্ত হয়ে যে সমস্ত পরিবারের প্রধানেরা মারা যাচ্ছেন তাদের পাশে গিয়ে দাঁড়াচ্ছি। এই পর্যন্ত রায়গঞ্জ ও ইটাহার মিলিয়ে ৩২টি পরিবারকে সাহায্য তুলে দিয়েছি। জানা গিয়েছে, গত বছর থেকে পার্থবাবু ধারাবাহিক ভাবে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে সাধ্যমতো জিনিস পত্র তুলে দিচ্ছেন।পার্থবাবু এদিন বৃদ্ধ দম্পতিকে সমস্ত সাহায্য করার আশ্বাস দিয়েছেন।