করোনা মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর আর্জি মুখ্যমন্ত্রীদের

319
ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: দেশজুড়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। ১৯ দিন লকডাউনের পরেও লাগাম টানা যায়নি করোনা সংক্রমণে। এই আবহে মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে বৈঠক শুরু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সকাল ১১টায় এই বৈঠক শুরু হয়। ভিডিয়ো কনফারেন্সে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, যোগী আদিত্যনাথ, পিনারাই বিজয়ন, উদ্ধব ঠাকরে, জগনমোহন-সহ বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা রয়েছেন। এছাড়াও বৈঠকে রয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।

এদিন প্রথম বার দেখা গেল বৈঠকের সময় মুখে মাস্ক ব্যবহার করেছেন প্রধানমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী সকলকে আশ্বস্ত করে বলেন, তিনি সকলের সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘করোনা মোকাবিলায় কেন্দ্র ও রাজ্যগুলির একই নীতি মেনে চলা উচিত। কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে আমরা করোনাভাইরাসের মোকাবিলা করব। আমি আপনাদের জন্য সর্বক্ষণ কাজ করতে প্রস্তুত।’ এরপর লকডাউন নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীদের কাছে পরামর্শ চান মোদী।

- Advertisement -

অধিকাংশ মুখ্যমন্ত্রীই লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর পক্ষে। কেউ কেউ ধাপে ধাপে লকডাউন প্রত্যাহারের পক্ষে। এই বিষয়েই আলোচনা চলছে। ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দেশজুড়ে লকডাউন মেয়াদ বৃদ্ধির আবেদন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের। লকডাউন বাড়ানোর পক্ষে সওয়াল করেছেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রশেখর রাও এবং মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরে। লকডাউন বৃদ্ধি ও করোনা পরীক্ষার টেস্টকিটের দ্রুত জোগানের আর্জি জানিয়েছেন পঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন সিং। এর পাশাপাশি শিল্প ও কৃষির জন্য বিশেষ আর্থিক প্যাকেজের দাবিও জানান তিনি। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানোর আর্জি জানিয়েছেন।

২ এপ্রিল মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে প্রথম ভিডিও কনফারেন্স করেন প্রধানমন্ত্রী। বৈঠকে লকডাউন কীভাবে তোলা যায় সেই বিষয়ে পরামর্শ চেয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। পরে সর্বদলীয় বৈঠকে লকডাউনের মেয়াদ বৃদ্ধির ইঙ্গিত দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। ইতিমধ্যেই একাধিক রাজ্য কেন্দ্রের কাছে লকডাউন বাড়ানোর আর্জি জানিয়েছে। ইতিমধ্যেই লকডাউনের মেয়াদ ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত ঘোষণা করেছে ওডিশা। লকডাউনের মেয়াদ বাড়িয়েছে পঞ্জাবও। রাজস্থান, ছত্তীসগঢ়ও লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানোর পক্ষেই সওয়াল করছে।

২৪ মার্চ তিন সপ্তাহের জন্য সারা দেশে লকডাউনের ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী। যা ১৪ এপ্রিল শেষ হওয়ার কথা।