সকলের নিরাপত্তা ও কল্য়ান কামনায় টুইট প্রধানমন্ত্রীর

98
ছবি: সংগৃহীত।

উত্তরবঙ্গ সংবাদ নিউজ ডেস্ক: যশ মোকাবিলায় আগাম কি কি পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে তা খতিয়ে দেখতে রবিবার পর্যালোচনা বৈঠকে বসলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বৈঠক শেষে টুইট বার্তায় প্রধানমন্ত্রী লেখেন, ‘সকলের নিরাপত্তা ও কল্য়ান কামনা করি।’ অন্যদিকে টুইট বার্তায় প্রধানমন্ত্রী জানান, নিরাপদ জায়গায় মানুষকে দ্রুত সরিয়ে নিয়ে যাওয়া, বিদ্যুৎ ও যোগাযোগ ব্যবস্থা যাতে বিঘ্নিত না হয় তা নিশ্চিত করার উপর গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের কারণে সংশ্লিষ্ট এলাকার কোভিড-১৯-এ সংক্রমিতদের চিকিৎসায় যাতে ব্যাঘাত না ঘটে, সেদিকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে।’

এদিন প্রধানমন্ত্রীর বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শীর্ষ সরকারি আধিকারিক সহ জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা কর্তৃপক্ষের প্রতিনিধি, টেলিকম, শক্তি, অসামরিক বিমান পরিবহণ, ভূবিজ্ঞান মন্ত্রকের সচিবরা। ঘূর্ণিঝড়ের সময়কালে কী করা উচিত, কী করা উচিত না এনিয়ে সচেতনতা বৃদ্ধিতে সংশ্লিষ্ট এলাকার স্থানীয় ভাষায় নির্দেশিকা জারির করার কথা জানানো হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর তরফে। জানা গিয়েছে ঘূর্ণিঝড় যশের মোকাবিলায় এনডিআরএফ-এর ৪৬টি দল তৈরি রয়েছে। অন্যদিকে ত্রাণ ও উদ্ধার কাজের জন্য উপকূলরক্ষী বাহিনী ও নৌসেনা প্রস্তুত রয়েছে।

- Advertisement -

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, বঙ্গোপসাগরের উপর তৈরি হচ্ছে ঘূর্ণিঝড় যশ। আগামী ২৫ তারিখ তা অতি শক্তিশালী ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হবে। পরদিন অর্থাৎ ২৬ মে বাংলাদেশ, পশ্চিমবঙ্গ ও ওড়িশার উপকূলবর্তী এলাকায় এই ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ার কথা রয়েছে। তবে পশ্চিমবঙ্গের কোন কোন এলাকায় ঘূর্ণিঝড় যশের প্রভাব পড়বে তা এখনও স্পষ্ট নয়। যদিও ঘূর্ণিঝড়ের আগাম সতর্কতা জারি হয়েছে।