আহমেদাবাদ, ৬ মেঃ জেলে সুড়ঙ্গ তৈরি করে বন্দি পালানো রুখতে রাজ্যের ২টি কেন্দ্রীয় জেলে উচ্চক্ষমতাসম্পন্ন সেন্সর বসানোর পরিকল্পনা নিয়েছে গুজরাট সরকার।

গুজরাট পুলিশের অতিরিক্ত ডিজি(কারা) টি বিশত জানান, পাঁচ বছর আগে সবরমতী কেন্দ্রীয় জেলের মধ্যে সুড়ঙ্গ দিয়ে পালানোর চেষ্টা করেছিল কয়েকজন বন্দি। এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি রুখতে ‘সুড়ঙ্গ সনাক্তকরণ ব্যবস্থা’ বসানো হবে এই জেলে। এই ব্যবস্থা বসানো হবে লাজপোর কেন্দ্রীয় জেলেও।

বিশত জানান, ভূপৃষ্ঠ থেকে ৩ মিটার নীচে নিয়মিত ব্যবধানে সেন্সর বসানো হবে। এই সেন্সর মাটির নীচের যে কোনও গতিবিধি সনাক্তকরণ করতে সক্ষম। প্রত্যকটি সেন্সর তার বসানোর জায়গা থেকে তিন মিটার(ওপরে এবং নীচে) ও ৬ মিটার ব্যাসার্ধের মধ্যে যে কোনো গতিবিধি ধরতে পারবে। এর জন্য ২.৮ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে গুজরাত সরকার।

তিনি আরও জানান, সবকটি সেন্সর কন্ট্রোল রুম ও অ্যালার্মের সঙ্গে যোগ থাকবে। কোনো গতিবিধি শনাক্ত হলেই বেজে উঠবে অ্যালার্ম। একইসঙ্গে, জেলকর্তাদের কাছে এসএমএস পৌঁছবে।