সোমবার থেকে কলকাতা ও জেলায় বেসরকারি বাস নামার সম্ভাবনা কম

185
প্রতীকী ছবি।

কলকাতা: রাজ্য সরকারের ঘোষিত মাসিক ১৫ হাজার টাকার অনুদান প্রত্যাহার করল বেসরকারি বাস মালিক সংগঠন। রবিবার বেসরকারি বাস মালিক সংগঠনের তরফে জানানো হয়, তাঁরা অনুদান চান না। তাঁরা বাস ভাড়া বৃদ্ধি বা সংশোধন চান বলে দাবি করা হয়েছে ফেডারেশন অফ বেঙ্গল বাস সিন্ডিকেটের পক্ষ থেকে। বর্তমানে বাস চালাতে দৈনিক লোকসান হচ্ছে ২০০০ টাকার বেশি। সেক্ষেত্রে সরকারের তরফে যে অনুদান দেওয়ার কথা বলা হয়েছে তা তাঁদের পক্ষে মেনে নেওয়া সম্ভব নয়। সুতরাং আলোচনার রাস্তা খোলা রেখেই তাঁরা সোমবার থেকে আর রাস্তায় বাস থামাতে পারবেন না বলে জানিয়ে দেন। অটাজ কলকাতা সহ রাজ্যের বেসরকারি বাস মালিকদের বৈঠকের পর এমনটাই জানানো হয়েছে।

উল্লেখ্য, লকডাউন প্রত্যাহার করার পর থেকেই কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী এলাকায় চলাচলকারি বাস মিনিবাস গুলির মালিকরা ভাড়া বাড়ানোর দাবি জানিয়ে আসা হচ্ছিল। তাঁদের দাবি ছিল, রাজ্য সরকার বাস চালানোর ব্যাপারে যে নিয়ম নীতি স্থির করে দিয়েছেন যে ,শুধুমাত্র সিটিং ক্যাপাসিটি অনুসারে প্রতিটি বাসে যাত্রী নিতে হবে। বাড়তি যাত্রী বাসে নেওয়া যাবে না। সেই নির্দেশিকা মেনে বর্তমান ভাড়ায় মালিকদের পক্ষে বাস চালানো সম্ভব নয়। বিশেষ করে, যখন ডিজেলের দাম দিনকে দিন বেড়ে যাচ্ছে।

- Advertisement -

অপরদিকে, মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দেন যে, কোনও মতেই সরকার বাস ভাড়া বাড়াবেন না। ভাড়া বাড়ানোর পরিবর্তে সরকারি তরফে বাস মালিকদের মাসে ১৫০০ টাকা করে অনুদান দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়। বেসরকারি বাস মালিকদের বক্তব্য, সরকার মাসে যে টাকাটা তাঁদের অনুদান হিসেবে দিতে চাইছেন সেটা দৈনিক ৫০০ টাকা। অথচ, বর্তমান পরিস্থিতিতে বাস চালাতে গিয়ে তাঁদের দৈনিক ২০০০ টাকা করে লোকসান হচ্ছে। তাঁদের বক্তব্য ছিল, সরকারের কথা মেনে ও যাত্রীদের দুর্ভোগের কথা বিবেচনা করে এতদিন লোকসান করেও বাস চালিয়েছেন তারা। কিন্তু তাঁদের পক্ষে আর সেই লোকসান বহন করা সম্ভব নয়। কাজেই সোমবার থেকে তাঁদের পক্ষে আর রাস্তায় বাস নামানো সম্ভব নয়।