উত্তরপ্রদেশে গ্রেপ্তার প্রিয়াংকা

115

লখনউ: কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াংকা গান্ধিকে গ্রেপ্তার করল উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। প্রায় ৩০ ঘণ্টা ঘরবন্দি থাকার পর মঙ্গলবার তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। প্রিয়াংকার বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছে পুলিশ।

রবিবার উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরি এলাকায় কৃষি আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ দেখাচ্ছিলেন কৃষকরা। সেই সময় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয় মিশ্রর ছেলে আশিস মিশ্রর গাড়ির ধাক্কায় ৪ কৃষকের মৃত্যু হয় বলে অভিযোগ। ঘটনার জেরে রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে লখিমপুর খেরি এলাকা। একটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয় উত্তেজিত জনতা। বেশ কয়েকটি গাড়িতে ভাঙচুরও করা হয়। এতে আরও চারজনের মৃত্যু হয়।

- Advertisement -

গাড়ির ধাক্কায় নিহত কৃষকদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করতে রবিবার রাতে লখিমপুর যাচ্ছিলেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াংকা গান্ধি। কিন্তু লখিমপুরে ঢোকার মুখে তাঁকে আটকায় পুলিশ। প্রিয়াংকাকে ‘বন্দি’ করে সীতাপুরের একটি শিবিরে রাখা হয়। সোমবার কংগ্রেসের তরফে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়। ভিডিওতে দেখা যায়, কংগ্রেস নেত্রীকে যে ঘরে রাখা হয়েছে, সেই ঘরের মেঝে ঝাড়ু দিয়ে পরিষ্কার করছেন তিনি।

এরপর মঙ্গলবার টুইটারে একটি ভিডিও পোস্ট করেন প্রিয়াংকা। সেখানে বিজেপি শাসিত কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন কংগ্রেস নেত্রী। এফআইআর ছাড়াই তাঁকে সীতাপুরের শিবিরে আটকে রাখা হয়েছে বলে এদিন তোপ দাগেন তিনি। লখিমপুরের ঘটনায় অভিযুক্তকে কেন এখনও গ্রেপ্তার করা হল না, ভিডিওতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে সেই প্রশ্ন রাখেন প্রিয়াংকা। লখিমপুরে এসে কৃষকদের সমস্যা শোনার জন্য প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধও জানান তিনি। ভিডিও পোস্টের পরপরই কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদককে গ্রেপ্তার করে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।