কলেজ ছাত্রীকে হেনস্থার অভিযোগে সাসপেন্ড অধ্যাপক

345

আসানসোল: আসানসোলের রুপনারায়নপুরের হিন্দুস্তান কেবলস নজরুল সেন্টিনারি পলিটেকনিক কলেজের এক পড়ুয়াকে যৌন হেনস্থার অভিযোগে শেষ পর্যন্ত সাসপেন্ড করা হল অভিযুক্ত অধ্যাপককে। অধ্যাপকের নাম অভিষেক বেরা। বুধবার তাকে আপাতত ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত সাসপেন্ড করা হয়েছে। পরবর্তী শাস্তির বিষয়টি আগামী ২ নভেম্বর কলেজ ও রাজ্যের কারিগরি শিক্ষাদপ্তর খোলার পরেই ঠিক করা হবে বলে এদিন জানিয়েছেন পলিটেকনিকের টিচার ইনচার্জ ফারুক আলি। কলেজ কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্তে নির্যাতিতা পড়ুয়ারা পরিবারও কিছুটা আশ্বস্ত হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

তবে ঐ অধ্যাপকের দৃষ্টান্তমূলক চূড়ান্ত শাস্তি প্রয়োজন বলে মনে করেন পড়ুয়ার অভিভাবকরা। তাদের দাবি, এটা হলে, আর কোন পড়ুয়ার সঙ্গে অন্য কোনও অধ্যাপক এমন ব্যবহার করার সাহস না দেখাবেন না।

- Advertisement -

পলিটেকনিক কলেজের ছাত্র সংসদের সভাপতি মিঠুন মন্ডল বলেন, ‘আমরা চাই শিক্ষাক্ষেত্রে শিক্ষক-শিক্ষিকারা যেন সবসময় ছাত্র-ছাত্রীদের নিজের ছেলেমেয়ের মতো মনে করেন ও সেই রকমভাবেই তাদের শিক্ষা দেন। তাদের প্রতি কোনভাবেই যেন কুনজর না দেওয়া হয়, তা অবশ্যই দেখতে হবে।‘

উল্লেখ্য, গত ৮ অক্টোবর রুপনারায়নপুর নজরুল সেন্টিনারি পলিটেকনিক কলেজের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের এক পড়ুয়া ঐ বিভাগেরই অধ্যাপক অভিষেক বেরার বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ লিখিতভাবে কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে করেছিলেন। সেই অভিযোগ পাওয়া মাত্রই কলেজের ইন্টার্নাল কমপ্লেন কমিটি বিষয়টির সত্যতা যাচাইয়ে নেমে পড়ে। তাঁরা প্রাথমিক তদন্তে অভিষেক বেরাকে দোষী বলে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। সেই রিপোর্ট জমা পড়ার পরে কারিগরি শিক্ষাদপ্তরকে তা জানানো হয়। তারই ভিত্তিতে এদিন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে আপাতত ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত অধ্যাপককে সাসপেন্ড করা হোক। পরবর্তী শাস্তির বিষয়টি রাজ্যের টেকনিক্যাল এডুকেশন ডিপার্টমেন্ট ঠিক করবে বলে টিচার ইনচার্জ জানিয়েছেন। অন্যদিকে, এমন ঘটনায় কলেজে আলোড়নের বাতাবরণের সৃষ্টি হয়েছে।