ট্রেন ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব মন্ত্রীসভায়

495

নয়াদিল্লি: ট্রেন চলাচল কবে নাগাদ স্বাভাবিক হবে তা এখনও ঠিক করে উঠতে পারেনি কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রক। লকডাউনের মধ্যে ইতিমধ্যে দেশের একাধিক বড় স্টেশনকে ঝাঁ চকচকে করে সাজানোর কাজ চলছে। সূত্রের খবর, স্টেশনগুলির আধুনিকীকরণের কারণ দেখিয়ে ট্রেনের টিকিটের ভাড়া ১০ টাকা থেকে ৩৫ টাকা পর্যন্ত বাড়ানোর চিন্তাভাবনা করছে ভারতীয় রেল।

এব্যাপারে একটি প্রস্তাব কেন্দ্রীয় মন্ত্রীসভায় অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে। রেলের তরফে আগেই জানানো হয়েছিল, যে সমস্ত স্টেশন অধিক যাত্রী ব্যবহার করেন এবং যেগুলি নতুন করে সাজানো হয়েছে, সেই সমস্ত স্টেশন ব্যবহারের জন্য টিকিটের ভাড়ার সঙ্গে অতিরিক্ত চার্জ বসানো হবে। বিমানবন্দরের ধাঁচে ওই টাকা আদায় করা হবে। তবে সেইসমস্ত স্টেশনের সংখ্যা দেশে মেরেকেটে ৭০০ থেকে ১০০০ বলে জানানো হয়েছিল।

- Advertisement -

রেলের তরফে জানানো হয়েছিল, অতিরিক্ত লেভি বাবদ যে টাকা আসবে, সেই টাকা দিয়ে রেলের পরিকাঠামো উন্নয়ন করা হবে। যাত্রী স্বাচ্ছন্দ্যের দিকে নজর দেওয়া হবে। তবে তাতে রেলের টিকিটের ভাড়া বাড়লেও নামমাত্র বাড়বে বলে জানিয়েছিলেন রেলবোর্ডের চেযারম্যান ভিকে যাদব।

রেলের শতাধিক রুটে বেসরকারি ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। একাধিক রেল স্টেশনকে বিশ্বমানের গড়ে তুলতে বেসরকারি সংস্থাগুলিকে ডাকা হচ্ছে। বিভিন্ন মহলের আশঙ্কা, মোদি সরকার রেলকে যেভাবে ঘুরপথে বেসরকারি হাতে তুলে দিচ্ছে তাতে আগামীদিনে যাত্রী ভাড়া আকাশছোঁয়া হওযার সম্ভাবনা প্রবল।