বাগডোগরার জঙ্গলে রমরমিয়ে চলছে দেহব্যবসা

494
প্রতীকী ছবি

খোকন সাহা, বাগডোগরা : বাগডোগরার জঙ্গলে রমরমিয়ে দেহব্যবসা চলছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বাগডোগরা রেলস্টেশন সংলগ্ন একটি বস্তির ৮ থেকে ১০ জন মহিলা এবং যুবতী এই ব্যবসার সঙ্গে জড়িত বলে খবর। বন বিভাগের কার্সিয়াং ডিভিশনের বাগডোগরা রেঞ্জের ব্যাংডুবি বিটের এই এলাকাটি সংরক্ষিত বনাঞ্চল। এছাড়াও সামরিক দিক থেকেও এলাকাটি সুরক্ষিত। এমন একটি এলাকার মধ্যে দেহব্যবসা চলায় নাগরিকদের মধ্যে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বিগ্ন পুলিশ এবং বন বিভাগের কর্তারা। সেনার তরফেও বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

বাগডোগরা-পানিঘাটা রোডের সামরিক বিভাগের সিক্সটিন এফএডি-র গেট পার হলেই একটি কালভার্ট রয়েছে। ওই কালভার্টটির  ডানদিকে জঙ্গলে ঢোকার জন্যে রাস্তায় প্রতিদিনই কয়েকজন যুবতী এবং মহিলারা বসে থাকছে। পরিচিত ‘খদ্দের’ পেলে বাইক বা স্কুটার নিয়ে সোজা জঙ্গলে চলে যাচ্ছে ওই মহিলারা। অপরিচিতদের সঙ্গে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে চলছে দরদাম। দরদাম মিটে গেলেই জঙ্গলে প্রবেশের অনুমতি মিলছে। অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরেই ওই জায়গায় দেহব্যবসা চালাচ্ছে ওই মহিলারা। সড়কপথে যাতায়াতকারীদের রীতিমতো হাত নেড়ে ডাকাডাকি করে তারা। প্রতিবেদকের হাতে ক্যামেরা দেখেই গাছের আড়ালে গা ঢাকা দিল কয়েকজন।

- Advertisement -

বাগডোগরা বনাঞ্চলে টিপুখোলা পিকনিক স্পটের পরিচালনার দায়িত্বে থাকা সেন্ট্রাল ফরেস্ট বস্তির জয়েন্ট ফরেস্ট ম্যানেজমেন্ট কমিটি (জেএফএমসি)-র সদস্যরাও এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ। কমিটির সদস্য সুরেন তামাং বলেন, বাগডোগরার রেলস্টেশন সংলগ্ন একটি বস্তি থেকে ৮ থেকে ১০ জন মহিলা এবং যুবতী প্রতিদিন ওই জায়গায় এসে দেহব্যবসা করছে। এতে জঙ্গলের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে। সাধারণ মানুষকে টানাটানি করে জঙ্গলে নিয়ে যাচ্ছে, এমন দৃশ্য আমাদের বহুবার নজরে পড়েছে। মাঝে মাঝে পুলিশ এসে ওঁদের ধরে নিয়ে গেলেও পরিস্থিতি বদলায়নি।

বাগডোগরার রেঞ্জার সমীরণ রাজ বলেন, বিষয়টি যথেষ্ট উদ্বেগের। আমার নজরেও পড়েছে। ওই স্থানটি সংরক্ষিত বনাঞ্চল। তবে জায়গাটি সেনাবিভাগের লিজে আছে বলে আমরা সব সময় ওখানে প্রবেশ করতে পারি না। যদি সেনাকর্মীরাই ওখানে যাতায়াত করেন তবে বিষয়টি সেনার দেখা উচিত। বাগডোগরা থানার পুলিশ জানিয়েছে, মোবাইল ভ্যান নিয়ে প্রায়দিনই ওই জায়গায় টহল দেওয়া হয়। তবে দূর থেকে পুলিশ ভ্যান দেখেই ওই মহিলারা জঙ্গলে লুকিয়ে যায়। গত শুক্রবারেও একজন মহিলাকে ধরা হয়েছিল।