কোয়ারান্টিন সেন্টারের বিরোধিতায় রাস্তা আটকে বিক্ষোভ

309

পুরাতন মালদা: পুরসভার জনবহুল এলাকার স্কুল ও কলেজে করা হবে ফেসিলিটি কোয়ারান্টিন সেন্টার। এমন খবর চাউর হতেই রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখালেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

বৃহস্পতিবার পুরাতন মালদা পুরসভার একাধিক ওয়ার্ডে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। পরে পুলিশ ও পুরপ্রধানের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। পুরপ্রধান জানিয়ে দেন, পুরসভা এলাকায় কোনও স্কুল বা কলেজে ফেসিলিটি কোয়ারান্টিন সেন্টার হবে না। যা ঘটেছে পুরোটাই গুজবের জের বলে জানান তিনি।

- Advertisement -

এপ্রিলের তৃতীয় সপ্তাহ পর্যন্ত মালদা করোনা সংক্রমণ মুক্ত থাকলেও ওই মাসের শেষ সপ্তাহে প্রথম করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ে। তার পর গত দু’সপ্তাহ ধরে সংক্রমণের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে জেলায়। বর্তমানে জেলায় মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১৯। এদের প্রত্যেকেই ভিনরাজ্য ফেরত পরিযায়ী শ্রমিক।

স্বভাবতই ভিনরাজ্য ফেরত ব্যক্তিদের থেকে যাতে সংক্রমণ না ছড়ায় সেজন্য ফেসিলিটি কোয়ারান্টিন সেন্টার খোলার সিদ্ধান্ত নেয় জেলা প্রশাসন। পরিযায়ী শ্রমিকদের হোম কোয়ারান্টিনে রাখার বদলে সেই সব ফেসিলিটি কোয়ারান্টিন সেন্টারে রাখার সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে প্রস্তুতিও শুরু করে দেয় জেলার দু’টি পুরসভা ও ১৪৬টি গ্রাম পঞ্চায়েত।

কোয়ারান্টিন সেন্টারের বিরোধিতায় রাস্তা আটকে বিক্ষোভ| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

পুরাতন মালদা পুরসভা এলাকার স্কুল ও কলেজগুলিতে ফেসিলিটি কোয়ারান্টিন সেন্টার খোলা হবে বলে খবর চাউর হয়ে যায়। ওই খবর ছড়িয়ে পড়তেই বিক্ষোভ দানা বাঁধতে থাকে পুর এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে। বৃহস্পতিবার পুরাতন মালদার বেশ কয়েকটি স্কুলের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন বাসিন্দারা।

ওসমানিয়া হাই মাদ্রাসা, গৌড় ঘোষ হাইস্কুলের সামনে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। মঙ্গলবাড়ি গৌড় কলেজের সামনে বুধবার রাত থেকেই দফায় দফায় বিক্ষোভ দেখান এলাকার মানুষ। বৃহস্পতিবারও সেই বিক্ষোভ অব্যাহত ছিল। পুরসভার ১৫ নম্বর ওয়ার্ডে শিবরামপল্লীতে গৌড় ঘোষ হাইস্কুলের সামনের রাস্তা বাঁশের ব্যারিকেড দিয়ে আটকে দেন বাসিন্দারা।

ওই স্কুলে ফেসিলিটি কোয়ারান্টিন সেন্টার খোলার প্রতিবাদে রাস্তা অবরোধও করেন তাঁরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় মালদা থানার পুলিশ। উপস্থিত হন পুরাতন মালদা পুরসভার চেয়ারম্যান কার্তিক ঘোষ। কার্তিকবাবু সাফ জানিয়ে দেন, পুর এলাকায় স্কুল ও কলেজে ফেসিলিটি কোয়ারান্টিন সেন্টার খোলার যে খবর ছড়িয়েছে, তা পুরোটাই গুজব।

তিনি বলেন, “পুরাতন মালদা পুরসভা এলাকায় স্কুল বা কলেজে কোনওরকম ফেসিলিটি কোয়ারান্টিন সেন্টার খোলা হচ্ছে না। সাধারণ মানুষকে অনুরোধ করব তাঁরা যেন গুজবে কান না দেন। কারও প্ররোচনাতেও যেন তাঁরা পা না দেন। পুর এলাকায় ভিনরাজ্য থেকে যে সমস্ত শ্রমিকরা ফিরবেন তাঁদের কোয়ারান্টিন করার জন্য মালদা জেলা প্রশাসন যে নির্দেশ দেবে সেই অনুযায়ী চলবে পুর প্রশাসন।” তবে পুলিশ ও পুরপ্রধানের হস্তক্ষেপে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।