উত্তরপ্রদেশে কৃষক মৃত্যু, প্রতিবাদের রেশ উত্তরবঙ্গে

196

উত্তরবঙ্গ ব্যুরো: উত্তরপ্রদেশে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ছেলের গাড়ির ধাক্কায় বিক্ষোভরত কৃষকদের মৃত্যুর ঘটনায় নিন্দার ঝড় উঠল উত্তরবঙ্গেও। সোমবার জেলায় জেলায় প্রতিবাদে সরব হয়েছে রাজনৈতিক দলগুলি। কৃষক মৃত্যু এবং যোগী পুলিশ দ্বারা দলনেত্রী প্রিয়াংকা গান্ধির ওপর হামলার ঘটনার প্রতিবাদে এদিন দার্জিলিং জেলা কংগ্রেস সভাপতি শংকর মালাকারের নেতৃত্বে শিলিগুড়িতে বিক্ষোভ দেখানো হয়। সারা ভারত কৃষক সভার মেটেলি থানা কমিটির ডাকে বাতাবাড়ি ফার্ম বাজারে প্রতিবাদ মিছিল বের করা হয়।

এদিন কোচবিহারেও প্রতিবাদ মিছিল করে জেলা তৃণমূল কিষান খেত মজদুর কমিটি। উত্তরপ্রদেশের সেই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান কমিটির সদস্যরা। সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিকে দিয়ে ঘটনার তদন্ত করানোর দাবি জানিয়েছেন তাঁরা। পাশাপাশি, কোচবিহার শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে এসইউসিআই। মিছিলটি শহরের কেশব রোড, সুনীতি রোড সহ নানা এলাকা পরিক্রমা করে। ঘটনার তদন্ত করে দোষীর উপযুক্ত শাস্তির দাবি তুলেছে তারা।

- Advertisement -

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার বালুরঘাটেও প্রতিবাদে রাস্তায় নামে এসইউসিআই। বালুরঘাট শহরজুড়ে ধিক্কার মিছিল করে তারা। শেষে বালুরঘাট জেলা প্রশাসনিক ভবনের সামনে বিক্ষাভ দেখানো হয়। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রীর কুশপুতুল দাহ করা হয়। উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জে ডিওয়াইএফআইয়ের রাজ্য সম্মেলনের শেষে সংগঠনের তরফে ধিক্কার মিছিল বের করা হয়েছে।

তিনদিন ব্যাপী ডিওয়াইএফআই এর ১৯ তম রাজ্য সম্মেলন শেষ হল সোমবার। রাজ্য সম্মেলনে মোট ৯১ জনের রাজ্য কমিটি তৈরি হয়েছে বলে সংগঠন সূত্রে জানা গিয়েছে। পূর্বতন রাজ্য কমিটির সম্পাদক ছিলেন সায়নদীপ মিত্র এবং সভাপতি ছিলেন মীনাক্ষী মুখার্জী। এদিন তৈরি হওয়া নতুন রাজ্য কমিটিতে সম্পাদিকার দায়িত্ব পেয়েছেন মীনাক্ষী মুখার্জী এবং সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন ধ্রুবজ্যোতি সাহা।

এদিন পুরাতন মালদার আটমাইল হাটে প্রতিবাদ মিছিল বের করে আরএসপির কৃষক সংগঠন তথা সারা ভারত সংযুক্ত কিষান সভা। এই প্রতিবাদ সভায় নেতৃত্ব দেন আরএসপির জেলা সম্পাদক সর্বানন্দ পান্ডে। সভায় কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধেও তোপ দাগেন সংগঠনের নেতৃত্ব।