উন্নয়নের বলি শতাব্দী প্রাচীন ২০০ গাছ, প্রতিবাদ আলিপুরদুয়ারে

151

আলিপুরদুয়ার: শতাব্দী প্রাচীন ২০০ টি গাছ কাটা নিয়ে বিতর্ক। এহেন সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে সরব হল আলিপুরদুয়ারের পরিবেশপ্রেমী সংগঠন। আলিপুরদুয়ার ২ নম্বর ব্লকে মহাসড়ক নির্মাণের জন্য প্রায় ২০০টির বেশি প্রাচীন গাছ কেটে ফেলা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যে ভোলারডাবরি এলাকায় প্রায় কুড়িটি গাছ কাটা হয়েছে। রাস্তার দুই ধারের গাছ দেদার কেটে ফেলায় ক্ষোভে ফুঁসছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

শুক্রবার পরিবেশপ্রেমী সংগঠনের প্রতিনিধিরা স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে এনিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। উভয়পক্ষই জানান, প্রাচীন গাছগুলি কেটে যাতে রাস্তা সম্প্রসারণ না করা হয় সেই ব্যবস্থা করতে হবে সড়ক কর্তৃপক্ষকে। পরিবেশপ্রেমী সংগঠনের এক সদস্যের আশঙ্কা, শতাব্দী প্রাচীন এই গাছগুলি কেটে ফেলা হলে অন্তত কুড়ি হাজারের বেশি পাখি তাদের ঠিকানা হারাবে। এলাকায় উষ্ণতা বেড়ে যাবে, বৃষ্টিপাত কমে জীব-বৈচিত্রের ক্ষতি হবে। তাই গাছগুলি না কাটার আবেদন জানানো হয়েছে। এই বিষয়ে চিলাপাতা এফসি রেঞ্জের রেঞ্জ অফিসার নির্মল রায় প্রামাণিক জানান, সড়ক সম্প্রসারণের কাজের জন্য জেলা প্রশাসনের নির্দেশে প্রায় ২০০টি গাছ কাটার কাজ শুরু হয়েছে। তাঁদের কাছে এই নিয়ে কোনও অভিযোগ আসেনি। মহাসড়ক নির্মাণের জন্যই ওই গাছ কাটতে হবে এবং পরবর্তীতে বন দপ্তর কয়েক হাজার গাছ লাগাবে। জাতীয় সড়ক কর্তৃপক্ষের জলপাইগুড়ি প্রজেক্ট ডিরেক্টর সঞ্জীব শর্মা জানান, সড়ক নির্মাণ করতে ওই গাছগুলি মাঝরাস্তায় পড়ছে। তাই গাছ না কেটে কোনও উপায় নেই।

- Advertisement -