হাঁস-মুরগি-ছাগলকে বিষ খাইয়ে মারার প্রতিবাদ করায় কোপ

205

রায়গঞ্জ: হাঁস মুরগি ও সাধের ছাগলকে বিষ খাইয়ে খুনের অভিযোগ করে আক্রান্ত হলেন খোদ অভিযোগকারী। ঘটনাটি ঘটেছে ইটাহার থানার কাপাসিয়া গ্রাম পঞ্চায়েতের নমনীয়া গ্রামে। তাঁদের ২৯টি মুরগি ও ৪টি হাঁস ও ১টি ছাগলকে বিষ খাইয়ে খুন করার অভিযোগ করায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয় মুর্শেদা বিবি ও তাঁর দুই ছেলেকে। তাঁরা আশঙ্কাজনক অবস্থায় রায়গঞ্জ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। যদিও মুর্শেদা বিবির অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাঁকে উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত শাকির হোসেন, জাকির হোসেন সহ মোট চার জনের বিরুদ্ধে ইটাহার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে জখমের পরিবার।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মুর্শেদা বিবির হাঁস মুরগি ও ছাগল প্রতিবেশীর জমিতে গিয়ে ধানের বীজ খেয়ে নেয় বলে অভিযোগ। সেই কারণে বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ির পাশে পতিত জমিতে ভাতের সঙ্গে বিষ মিশিয়ে ফেলে রাখে প্রতিবেশী। সেটা খাওয়াতেই বিপত্তি। এরই প্রতিবাদ করতে গেলে প্রথমে অভিযুক্তদের সঙ্গে বচসা বাধে মুর্শেদা বিবি ও তাঁর ছেলেদের। পরে তা হাতাহাতিতে পরিণত হয়। প্রতিবেশীর ধারাল অস্ত্রের কোপে গুরুতর জখম হন মুর্শেদা বিবি ও তাঁর দুই ছেলে। মুর্শেদা বিবির স্বামী মেহেবুব হক বলেন, ‘চারজনের বিরুদ্ধে এদিন ইটাহার থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।’ ইটাহার থানার আইসি দীপঙ্কর বিশ্বাস বলেন, ‘ঘটনার তদন্ত চলছে।’

- Advertisement -