করোনা আক্রান্তকে সেফ হাউসে পাঠানোর দাবিতে বিক্ষোভ এলাকাবাসীদের

0
78

ধূপগুড়ি: সংক্রমণের খবর মেলার পর কেটে গিয়েছে পুরো ২৪ ঘন্টা। তারপরও সংক্রামিত ওই ব্যক্তিকে কোভিড হাসপাতাল বা সেফ হাউসে স্থানান্তর করা হয়নি বলে অভিযোগ। এরই প্রতিবাদে রবিবার রাতে আন্দোলনে নামলেন ধূপগুড়ি কলেজপাড়া এলাকার বাসিন্দাদের একাংশ।

উল্লেখ্য, গত শনিবার কলেজপাড়ার বাসিন্দা নর্থবেঙ্গল ষ্টেট ট্রান্সপোর্টের এক অস্থায়ী কর্মীর করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে। ওই ব্যক্তি গত ১৫ জুলাই কলকাতা থেকে ফিরেছিলেন এবং গত বৃহস্পতিবার ধূপগুড়ি হাসপাতালের সোয়াব সংগ্রহ কেন্দ্রে লালার নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল বলে খবর। শনিবার রিপোর্টে করোনার প্রমাণ আসার সঙ্গে সঙ্গেই জেলা প্রশাসনের নির্দেশে তার বাড়ি সংলগ্ন এলাকা কনটেনমেন্ট জোন করা হয়।

তবে তিনি সম্পূর্ণভাবে উপসর্গহীন হওয়ায় তাকে কোভিড বা সেফ হোমে স্থানান্তর করা হয়নি। পরিবর্তে বাড়িতেই থাকার পরামর্শ দেন চিকিৎসকরা। চিকিৎসাও শুরু হয়েছে বলে খবর। রবিবার এলাকাটি পুরসভার তরফ থেকে স্যানিটাইজ করার পাশাপাশি পরিবারটির প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র পৌছে দেওয়ার ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

আন্দোলনকারীদের একজন উত্তম দত্ত জানান, ২৪ ঘন্টা পেড়িয়ে গেলেও একজন সংক্রামিত রোগীকে চিকিৎসার জন্যে নিয়ে যাওয়া হল না। এলাকাবাসী আতঙ্কে রয়েছে। ওই ব্যক্তির সঙ্গে সঙ্গে তাঁর পরিবারের অবস্থা নিয়েও আশঙ্কিত স্থানীয়দের একাংশ। ফলে তারা শেষ পর্যন্ত আন্দোলনে নামতে বাধ্য হয়েছেন। ব্লক স্বাস্থ্য প্রশাসনের তরফে এবিষয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও মন্তব্য মেলেনি।