প্রত্যাশিত ফল না হওয়ায় রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়াদের

263
হেলাপাকড়ি

নিউজ ব্যুরো: ২২ জুলাই উচ্চমাধ্যমিকের ফল ঘোষণা করা হয়েছে। এরপর শুক্রবার রাজ্যজুড়ে শুরু হয়েছে পড়ুয়াদের বিক্ষোভ ও রাস্তায় অবরোধ। কোথাও ছাত্র-ছাত্রীদের ফেল করানোর আবার কোথাও অপ্রত্যাশিত নম্বরের জন্য স্কুল ঘেরাও করেছে পড়ুয়ারা। উত্তরবঙ্গ ও দক্ষিণবঙ্গের একাধিক স্কুলে এদিন পড়ুয়ারা বিক্ষোভ দেখায়। পরীক্ষার ফল আশানুরূপ না হওয়ায় রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলনে শামিল হলেন ভোটপট্টি এইচবিএল পদমতি ইউনিয়ন রহিমুদ্দিন হাইস্কুলের উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়ারা একাংশ। এদিন স্কুল মোড়ে ময়নাগুড়ি-চাংরাবন্ধাগামী সার্করোড অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন ভোটপট্টি এইচবিএল হাই স্কুলের পড়ুয়ারা। তাদের দাবি, সঠিক মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রত্যেক পড়ুয়ার উপযুক্ত প্রাপ্ত নম্বর দিতে হবে। তা নাহলে আন্দোলন থেকে কিছুতেই তারা সরে দাঁড়াবেন না। বরং প্রয়োজনে বৃহত্তর আন্দোলনের পথে যাবেন তাঁরা।

প্রত্যাশিত ফল না হওয়ায় রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়াদের| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India
পুরাতন মালদা

পুরাতন মালদার কালাচাঁদ হাই স্কুলের বেশ কিছু ছাত্র উচ্চমাধ্যমিকে ফেল করায় স্কুল কর্তৃপক্ষ দায়ী করে থানা রোড অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় পড়ুয়ারা। অবরোধকারী ছাত্রদের অভিযোগ, পরীক্ষা না দিয়ে একাদশ শ্রেণীর ফলাফলের ভিত্তিতে তাদের উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্ট ঘোষণা হয়েছে। কিন্তু স্কুল কর্তৃপক্ষ একাদশের দুটো পরীক্ষা না নিয়ে এবং ওই দুটো বিষয়ে নম্বর না দিয়ে রেখে দেয়। ফলে প্রায় ৫০ জন পড়ুয়ারা ফেল করেছে। এ বিষয়ে প্রধান শিক্ষক রাহুল রঞ্জন দাস জানান, একাদশ শ্রেণীর নম্বরের ভিত্তিতেই বোর্ড রেজাল্ট ঘোষণা করেছে এতে তাদের কিছু করার নেই।

- Advertisement -
প্রত্যাশিত ফল না হওয়ায় রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়াদের| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India
চাকুলিয়া

উচ্চ মাধ্যমিকের পরীক্ষার ফল মেনে নিতে পারছে না চাকুলিয়া হাই স্কুলের একাংশ ছাত্র- ছাত্রীরা। শুক্রবার তারা স্কুলে গিয়ে নম্বর বৃদ্ধির দাবিতে বিক্ষোভ শুরু করে। শুধু তাই নয়, স্কুলের মূল ফটক বন্ধ করে তারা আন্দোলন শুরু করলে পরিস্থিতি অগ্নিগর্ভ আকার নেয়। পরবর্তীতে চাকুলিয়া থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি সামাল দেয়।

প্রত্যাশিত ফল না হওয়ায় রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়াদের| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India
চাঁচল

উচ্চমাধ্যমিকের ফলাফলে সন্তুষ্ট না হয়ে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে প্রধান শিক্ষকের ঘরে অবস্থান বিক্ষোভ পড়ুয়াদের। ঘটনাটি ঘটেছে মালদার চাঁচলের খরবা হরিনারায়ণ এগ্রিল হাই স্কুলে। অভিযোগ, ফল প্রকাশের পর ওই স্কুলের মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীরা খুবই কম নম্বর পাওয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে বিক্ষোভ দেখান।

প্রত্যাশিত ফল না হওয়ায় রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়াদের| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India
রামপুরহাট

আশানুরূপ নম্বর না পাওয়ায় স্কুলে স্কুলে বিক্ষোভ দেখাল ছাত্রছাত্রী ও অভিভাবকরা। অনেকে কান্নায় ভেঙে পরে স্কুলেই। কোন কোন স্কুল নিজেদের ভুলের কথা স্বীকার করে ছাত্রছাত্রীদের কাছ থেকে লিখিত আবেদন গ্রহণ করে। তবে সেই আবেদনে কতটা সাড়া মিলবে তা নিয়ে সন্দিহান ছাত্রছাত্রী ও তাদের অভিভাবকরা। রামপুরহাট উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী এবং অভিভাবকরা একরাশ ক্ষোভ নিয়ে শুক্রবার দিনভর ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষিকাকে ঘেরাও করে রাখেন। প্রধান শিক্ষিকা মল্লিকা হালদার বলেন, ‘আমাদের একটা ভুল ছিল। আমরা ছাত্রীদের কাছ থেকে আবেদন নিচ্ছি। ২৬ জুলাই পর্ষদে যাব। যাদের মাধ্যমিকে ভাল ফলাফল হয়েছিল তাদের নম্বর বাড়বে।‘ এছাড়াও রামপুরহাটের একাধিক স্কুলে বিক্ষোভের আঁচ পাওয়া যায়।

প্রত্যাশিত ফল না হওয়ায় রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ উচ্চমাধ্যমিক পড়ুয়াদের| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India
আসানসোল

পাস ও ফেল নিয়ে চরম জটিলতা ও বিভ্রান্ত তৈরি হয়েছে উচ্চমাধ্যমিকের রেজাল্ট হাতে পাওয়া পড়ুয়াদের মধ্যে। ‘পাস করে ফেল, না ফেল করে পাস’, তা স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বা টিচার ইনচার্জ কিছুই জানেন না। এই ঘটনায় বিক্ষোভে ফেটে পড়েন পড়ুয়াদের সঙ্গে অভিভাবকরাও। অভিযোগ, মার্কশিটে ফেল লেখা হয়েছে। অথচ পাস নম্বর দেওয়াও আছে। এমনই ঘটনাকে কেন্দ্র করে আসানসোলের ধাদকা নারায়ণ চন্দ্র লাহিড়ী বিদ্যামন্দিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।