চাঁচলকে পুরসভা ঘোষণা সহ একাধিক দাবিতে বামেদের মিছিল ও সমাবেশ

515

সামসী: চাঁচলকে পুরসভা ঘোষণা সহ একাধিক দাবিতে ভারতের ছাত্র ফেডারেশন (এসএফআই) ও ভারতের গণতান্ত্রিক যুব ফেডারেশন (ডিওয়াইএফআই)-এর আহ্বানে সোমবার দুপুর ২টা নাগাদ চাঁচলে মহামিছিল ও এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এদিন সমাবেশের প্রধান বক্তা ছিলেন ডিওয়াইএফআই-এর প্রাক্তন রাজ্য সম্পাদক জামির মোল্লা।

এদিনের মিছিল ও সমাবেশে ডিওয়াইএফআই-এর প্রাক্তন রাজ্য সম্পাদক জামির মোল্লা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের জেলা সম্পাদক বিপ্লব দাস, সভাপতি আনোয়ার আলি, জেলা সম্পাদক মন্ডলীর দুই সদস্য আনোয়ার সাদাত ও মওদুদ আলম, জেলার ছাত্র-যুব আহ্বায়ক কৌশিক মিশ্র, ডিওয়াইএফআই-এর চাঁচল ব্লক সম্পাদক সানাউল্লাহ খান, এসএফআই-এর মালদা জেলা কমিটির সদস্য অভিজিৎ দাস, জিসান আহম্মেদ, অভিজিৎ গুপ্ত, সিপিএমের মালদা জেলা কমিটির সদস্য জামিল ফেরদৌস, শিক্ষক নেতা পার্থ সরকার সহ আরও অনেকে।

- Advertisement -

এদিন উপস্থিত বক্তারা রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেস সরকার ও কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের সমালোচনা করেন।চাঁচলকে পুরসভা ঘোষণার দাবি জানান। পাশাপাশি মানুষে মানুষে বিভাজনের রাবজনীতি ন্ধ করে ভ্রাতৃত্ব ও মৈত্রীর বন্ধন গড়ে তুলতে সকলের নিকট আহ্বান জানানো হয়। সকলের জন্য শিক্ষা এবং শিক্ষা শেষে কাজের দাবিটিও সবিস্তারে তুলে ধরা হয়। কর্মসংস্থান না হওয়া পর্যন্ত সকল বেকার যুবক-যুবতীকে মাসে নূন্যতম ছয় হাজার টাকা বেকার ভাতার দাবি জানানো হয়। শিক্ষাক্ষেত্রে নৈরাজ্যের প্রতিবাদে এবং গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরিয়ে আনারও দাবিও জানানো হয়।

নতুন ঘরের জন্য বরাদ্দ প্রাপ্য টাকা থেকে ১০ হাজার বা ২০ হাজার টাকা কাটমানি নেওয়া দুর্নীতিগ্রস্তদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থার দাবি এবং ১০০ দিনের কাজ ২০০ দিন করার দাবি তোলা হয়। মালদা জেলা তথা চাঁচল মহকুমার বিভিন্ন প্রান্তে নদী ভাঙন রোধ ও ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনের দাবিও তুলে ধরা হয় এদিন। রেল, বীমা, কয়লা, এয়ার ইন্ডিয়া সহ রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বেসরকারিকরণের প্রতিবাদের পাশাপাশি শিল্পায়নেরও দাবিও জানানো হয়।