বিজেপি প্রার্থী বদলের দাবিতে বিক্ষোভ

86

মানিকগঞ্জ: ভোটের মুখে ক্রমশ বাড়ছে আদি বনাম নব্যের লড়াই। বিজেপি প্রার্থী বদলের দাবিতে জলপাইগুড়িতে ফের নতুন করে বিক্ষোভ শুরু হয়েছে। জলপাইগুড়ি শহরের পর এবার গ্রামীণ এলাকাতেও বিক্ষোভের আঁচ ছড়াতে শুরু করেছে। শনিবার সন্ধ্যায় দক্ষিণ বেরুবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের অধীন সাতকুড়া বাজারে ১৭ জলপাইগুড়ি তপশিলি আসনের বিজেপি প্রার্থী বদলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেন কর্মী-সমর্থকরা। মিছিল শেষে বাজার এলাকায় জমায়েত হয়ে বিক্ষোভ দেখান তাঁরা। এর নেতৃত্ব দেন খারিজা বেরুবাড়ি-২ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান রেবতী রায়, প্রাক্তন মণ্ডল সভাপতি দ্বিগবিজয় সরকার, তপশিলি মোর্চার জেলা সম্পাদক সঞ্জয় রায়, মণ্ডল সভাপতি টিঙ্কু সিংহ, তপশিলি মোর্চার বিধানসভা পর্যবেক্ষক বিশ্বদেব রায়, তপশিলি মোর্চার মেখলিগঞ্জ বিধানসভা পর্যবেক্ষক মণি রায় প্রমুখ। তাঁদের বিক্ষোভে এলাকায় ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয়। ভোটযুদ্ধ শুরুর আগেই এভাবে ঘরের ঝামেলা প্রকাশ্যে আসায় বেশ বেকায়দায় পড়েছে বঙ্গ বিজেপি।

তপশিলি মোর্চার মেখলিগঞ্জ বিধানসভা পর্যবেক্ষক মণি রায় বলেন, ‘টাকার বিনিময়ে ১৭ নম্বর জলপাইগুড়ি তপশিলি আসনটি তৃণমূলের কাছে বিক্রি করে দিয়েছেন বিজেপির জলপাইগুড়ি জেলা সভাপতি বাপী গোস্বামী। কেন্দ্র নেতৃত্বের দৃষ্টি আকর্ষণ করতেই আমরা বিক্ষোভ দেখাচ্ছি। অবিলম্বে প্রার্থী বদলের দাবি জানাচ্ছি। অন্যথায় আরও বড়সড় আন্দোলনে নামব।’

- Advertisement -

তপশিলি মোর্চার জলপাইগুড়ি সদর দক্ষিণ মণ্ডল সভাপতি টিঙ্কু সিংহ বলেন, ‘পুরোনো বিজেপি নেতা-কর্মীদের প্রার্থী না করে তিনমাস আগে তৃণমূল থেকে আসা নতুন একজন‌কে প্রার্থী করা হয়েছে। এমনটা কিছুতেই মেনে নেব না।’

খারিজা বেরুবাড়ি-২ গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান রেবতী রায় বলেন, ‘আমরা চাইছি আমাদের পুরোনো নেতা রাজ্য কমিটির সহ সভাপতি দীপেন প্রামাণিক‌কে ওই আসন থেকে প্রার্থী করা হোক। তিনি দীর্ঘদিন ধরে দলের সংগঠনের কাজ করে আসছেন।’

প্রাক্তন মণ্ডল সভাপতি দ্বিগবিজয় সরকার বলেন, ‘কোটি টাকা নিয়ে এই আসন তৃণমূলের হাতে বিক্রি করে দিলেন বিজেপির জেলা সভাপতি বাপী গোস্বামী।’