বিনা চিকিৎসায় শিশু মৃত্যুর ঘটনায় বিক্ষোভ

894

তুফানগঞ্জ: বিনা চিকিৎসায় শিশু মৃত্যুর অভিযোগ উঠল তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালে। মৃত শিশুর নাম আরিফ হক। তার বয়স ৫ মাস ৫ দিন। শিশুটির বাড়ি তুফানগঞ্জ থানার অন্তর্গত নাটাবাড়ি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের দেবত্র চারালজানি এলাকায়।

শিশুটির বাবা মনিরুল হকের অভিযোগ, কয়েকদিন ধরে তাঁর একমাত্র শিশু পেটের রোগে ভুগছিল। বুধবার সন্ধ্যায় তাঁর ছেলে অসুস্থ হয়ে যাওয়ায় তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালে এক চিকিৎসকের কাছে প্রাইভেটে চিকিৎসা করান। ভোর ৪টা ৩০ নাগাদ শিশুটির অবস্থা খারাপ হওয়ায় তিনি শিশুটিকে তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালের শিশু বিভাগে ভর্তি করান।

- Advertisement -

মনিরুল সাহেবের অভিযোগ, তাঁর সন্তান হাসপাতালে ভর্তি হলেও সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক কেউ চিকিৎসা পরিষেবা ভালোভাবে দেন নি। এরফলে তাঁর সন্তানের সকাল ৭টা ৫০ নাগাদ চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্য হয়।

মনিরুল সাহেবের অভিযোগ, তাঁর সন্তান চিকিৎসাধীন থাকাকালীন বার বার কর্তব্যরত নার্সকে স্যালাইন দেওয়ার দাবী জানালেও, তাকে স্যালাইন দেওয়া হয়নি। শুধুমাত্র ওআরএস দেওয়া হয়েছিল। চিকিৎসক এসে তাঁর সন্তানের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেননি। এই ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়তেই মৃত শিশুর আত্মীয় পরিজনেরা হাসপাতাল চত্ত্বরে ভিড় জমান ও ক্ষোভে ফেটে পড়েন।

তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালে পৌঁছায়। এদিকে প্রায় তিন ঘন্টা পরেও মৃত দেহ দিতে দেরি করায় পুলিশের সামনেই মৃতের আত্মীয়রা জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক সুপ্রিয় রায়কে হেনস্থার চেষ্টা করে। এদিকে মৃতের আত্মীয় পরিজনদের হাতে দেহ সকাল এগারোটা নাগাদ তুলে দেওয়া হয়। দেহ নিয়ে মৃতের আত্মীয়রা তুফানগঞ্জ থানায় পৌঁছান।

তবে তুফানগঞ্জ থানার পুলিশ আধিকারিকেরা মৃত দেহের শেষকৃত্য করে আসতে বললে মৃতের আত্মীয়রা বাড়ি চলে যান। মৃতের মামা সহিদুল হক বলেন, বিনা চিকিৎসায় শিশু মৃত্যুর বিষয়ে তুফানগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ জানানো হবে।

তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালের সুপার মৃনাল কান্তি অধিকারী বলেন, ঘটনার খবর পেয়ে মৃতের আত্মীয়দের সাথে কথা বলে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করেছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের জন্য তুফানগঞ্জ থানায় খবর দেওয়া হয়েছিল। সমস্ত ঘটনা মৌখিক ভাবে জেলা মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিককে জানানো হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।