ভাই নেইমারের পাশে খেলার পথে মেসি

বার্সেলোনা : ২০১৩ সালে নেইমারকে বার্সেলোনায় আনার ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা নিয়েছিলেন। মাঠে হোক বা বাইরে, দাদার মতো আগলে রাখতেন। চার মরশুম পর নেইমার দল ছাড়লে কষ্ট পেয়েছিলেন। তারপর প্রতিটি ট্রান্সফার উইন্ডোর আগে নেইমারকে ফেরানোর পক্ষে সওয়াল করতে। অবশেষে প্রিয় নেইমারের পাশে খেলতে লিওনেল মেসিকে খেলতে দেখার সম্ভাবনা বাড়ছে। তবে বার্সেলোনা নয়, দুই মহতারকাই সম্ভবত গায়ে দেবেন প্যারিস সাঁ জাঁর নীল জার্সি।

বৃহস্পতিবারই বার্সেলোনার তরফে সরকারিভাবে ঘোষণা করা হয়েছে, ক্লাব ও মেসির দুই দশকের সম্পর্ক ভাঙছে। গত জুনেই মেসির সঙ্গে ক্লাবের চুক্তি শেষ হয়েছে। কিন্তু লা লিগার আর্থিক মাপকাঠি রক্ষা করতে গিয়ে তাঁকে ফের সই করাতে ব্যর্থ হল কাতালান ক্লাবটি। এদিনই মায়ামিতে মেসির সঙ্গে দেখা করে তাঁর বাবা তথা এজেন্ড জর্জে মেসি বার্সেলোনায় আসেন ক্লাবকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করতে। সেখানেই ক্লাব সভাপতি হুয়ান লাপোর্তে নিজেদের সমস্যার কথা জানান। সূত্রের খবর, বাবার থেকে এখবর শুনে বেশ মুষড়ে পরেন মেসি। কারণ মায়ামিতে পরিবারের সঙ্গে ছুটি কাটিয়ে দ্রুত বার্সেলোনায় ফেরার পরিকল্পনা ছিল তাঁর। এমনকি ক্লাব সভাপতির সঙ্গে মেসেজে কথা বললেও এই সম্ভাবনার কথা তাঁকে জানানো হয়নি। ফলে লাল-নীল জার্সিতে ৭৭৮ ম্যাচ, ৬৭২ গোল, ৩০৫ অ্যাসিস্ট ও ৩৪টি ট্রফি জয়ের পর বার্সেলোনা ছাড়তে একপ্রকার বাধ্য হলেন লা মাসিয়া অ্যাকাডেমির সর্বকালের সেরা ছাত্র।

- Advertisement -

এই পরিস্থিতিতে মেসিকে দলে নেওয়ার ক্ষেত্রে প্যারিস সাঁ জা, ম্যাঞ্চেস্টার সিটি, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড ও চেলসি সবার আগে রয়েছে। কারণ মেসির বছরে ১৫০ মিলিয়ন ইউরো বেতনের ভার নেওয়ার মতো আর্থিক জোর এই ক্লাবগুলিরই রয়েছে। এদের মধ্যে ম্যাঞ্চেস্টার সিটিতে মেসির প্রিয়পাত্র তথা প্রাক্তন কোচ পেপ গুয়ার্দিওলার থাকা একটা বড় ফ্যাক্টর। তবে সূত্রের খবর, মেসি প্যারিসে যাওয়ার সম্ভাবনা ব্যক্তিগতভাবে খতিয়ে দেখছেন। ইতিমধ্যে তিনি প্যারিস বস মাউরোসিও পচেত্তিনোর সঙ্গে ফোনে কথা বলেছেন। আবার প্যারিসের তরফে মেসিকে রাজি করানোর জন্য নেইমার সহ দলের অন্য লাতিন আমেরিকান ফুটবলারদের ময়দানে নামানো হয়েছে।