কনটেনমেন্ট জোন ঘোষণা হতেই ক্ষুদ্ধ আমজনতা

65

জলপাইগুড়ি: ২০ নম্বর ওয়ার্ডের পর কনটেইনমেন্ট জোন হল জলপাইগুড়ি পুরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড। একজন করোনা আক্রান্ত রোগীর হদিস না মিললেও আস্ত এলাকাকে কনটেইনমেন্ট জোন ঘোষণা করা হল শনিবার ঘটনায় পুরসভা এবং জেলা প্রশাসনের মধ্যে করোনা আক্রান্তের বর্তমান পরিস্থিতির তথ্য আদানপ্রদানের সমন্বয়ের অভাব উসকে দিল। শনিবার ২ নম্বর ওয়ার্ডে যে জায়গা কনটেনমেন্ট করা হয়েছে সেখানে একমাস আগে করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন ৫ জন। তবে, বর্তমানে ওই এলাকায় একজন করোনা রোগীও নেই। স্বাভাবিকভবেই ক্ষুব্ধ আমজনতা।

২ নম্বর ওয়ার্ডের কো-অর্ডিনেটার দূর্বা বন্দোপাধ্যায় বলেন, ‘আমরা নামেই কোভিড কো অর্ডিনেটার। ওয়ার্ডে কোভিড পরিস্থিতি সম্পর্কে আমাদের কাছে কিছুই জানতে চাওয়া হয় না। কোভিড নিয়ে বৈঠক হলে ডাকাও হয়না। যার ফলে, বর্তমানে কোভিড পজেটিভ নেই এমন একটি জায়গাকে কনটেনমেন্ট জোন হিসেবে চিহ্নিত করে সাধারণ মানুষকে সমস্যায় ফেলা হল।’

- Advertisement -

পুরসভার প্রশাসনিক বোর্ডের চেয়ারপার্সন পাপিয়া পালের বক্তব্য, সরকারি নির্দেশ পালন করা হয়েছে মাত্র। একইসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।অন্যদিকে সদর মহকুমা শাসক সুদীপ পাল জানিয়েছেন, ঘটনা প্রসঙ্গে পুরসভার সঙ্গে কথা বলা হবে।