সড়ক কেটে জমা জল বের করতে উদ্যত পূর্ত দপ্তর

236

ময়নাগুড়ি: জাতীয় সড়ক কেটে দোকানঘর ও বসতবাড়ির জমা জল বের করে দেওয়া হল। টানা বর্ষণের জেরে শনিবার রাতে স্থানীয়রা বাধ্য হয়েই রাস্তা কেটে দেন। ২০ টির বেশি দোকানঘরের ভেতর জল জমে গিয়েছিল। পেছনে বেশ কয়েকটি বসতবাড়ি জলমগ্ন হয়ে পড়ে।

এরপরই ময়নাগুড়ি শহরের জাগৃতিমোড়ে ময়নাগুড়ি ধূপগুড়ি ৩১ নম্বর জাতীয় সড়ক কেটে দেওয়া হয়। রাস্তা কেটে দেওয়ার এক ঘন্টার মধ্যেই সমস্ত জমা জল নর্দমা দিয়ে বেরিয়ে যায়। রবিবার কাটা রাস্তার মাটি সরিয়ে ওখানে হিউম পাইপ বসিয়ে দ্রুত রাস্তা মেরামতির কাজ শুরু করেছে পূর্ত দপ্তর। ফলপ্রসূ গুরুত্বপূর্ণ এই রাস্তা আপাতত বন্ধ রাখা হয়েছে।

- Advertisement -

এখানে রাস্তা কেটে দেওয়ার ফলে পিএইচই-র পানীয় জলের পাইপ কেটে গিয়েছে। এরফলে এদিন আনন্দনগর, রাউত কলোনি ও দেবীনগর পাড়ায় পানীয় জল পরিষেবা ব্যাহত হয়েছে। যদিও দপ্তরের উদ্যোগে দ্রুত পাইপ লাইন মেরামতির কাজও শুরু করে দেওয়া হয়েছে।

এদিন পূর্ত দপ্তরের জুনিয়র ইঞ্জিনিয়ার সুমিত অধিকারী বলেন, ‘রাস্তার নিচের হিউম পাইপ বন্ধ হয়ে যায়। ফলে এই এলাকায় দোকান ও বাড়িতে জল জমে যায়। আমরা হিউম পাইপ বসিয়ে রাস্তা মেরামতির কাজ শুরু করেছি। দ্রুত কাজ শেষ করা হবে।‘

অন্যদিকে, জাগৃতিমোড় ঘুমটি ব্যবসায়ী সমিতির তরফে গৌতম বিহানি বলেন, ‘২০ টির বেশি দোকানের ভেতরে জল জমে গিয়েছিল। পেছনে বেশকয়েকটি বাড়িতে ঘরে জল ঢুকে যায়। এরপর জল বের করতে শনিবার রাতে স্থানীয়রা রাস্তা কেটে দেন। অল্প সময়ের মধ্যেই সমস্ত জমা জল বেরিয়ে গিয়েছে।‘