গুরজিতের নামে স্টেডিয়াম, চাকরি চায় পরিবার

টোকিও : টোকিও অলিম্পিকে দুরন্ত পারফরমেন্সের জের। এবার গোটা স্টেডিয়াম নামাঙ্কিত হতে চলেছে ভারতীয় মহিলা হকি দলের তারকা গুরজিৎ কাউরের নামে।

অমৃতসর থেকে দশ কিলোমিটার দূরে ভারত-পাক সীমান্তবর্তী গ্রাম মিয়াদি কালানে বসবাস গুরজিৎ ও তাঁর পরিবারের। সেখানকার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান দিলরাজ সিং ঘোষণা করেছেন, গ্রামের নবনির্মিত স্টেডিয়াম নামকরণ করা হবে গুরজিতের নামে। এহেন খুশির খবরে যদিও আনন্দের লেশমাত্র নেই গুরজিতের পরিবারে। মেয়ের জন্য পঞ্জাব সরকারের কাছে চাকরির দাবি জানিয়েছেন গুরজিতের বাবা সতনাম সিং।

- Advertisement -

ব্রোঞ্জ প্লে অফে গ্রেট ব্রিটেনের বিরুদ্ধে জোড়া গোল করা গুরজিৎ ভারতীয় রেলওয়ের কর্মী। কর্মসূত্রে তাঁকে থাকতে হয় এলাহাবাদে। পঞ্জাব পুলিশে এসপি পদে নিয়োগ পেলে গুরজিৎ পরিবারের সঙ্গে থাকতে পারবেন বলে বিশ্বাস সতনামের। গুরজিতের কাকা বলবিন্দার সিং আবার পঞ্জাব সরকারের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগ তুলেছেন।

টোকিও-তে ভালো ফলের জন্য বন্দনা কাটারিয়াকে ২৫ লাখ টাকা আর্থিক পুরস্কার দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী পুষ্কর সিং ধামিও। গণমাধ্যমে তিনি বলেছেন, বন্দনা উত্তরাখণ্ডের মেয়ে। টোকিও অলিম্পিকে ওর পারফরমেন্স সবার নজর কেড়ে নিয়েছে। এদিকে ব্রোঞ্জ পদক প্রাপ্ত পুরুষ হকি দলের তারকা বরুণ কুমারকে ১ কোটি থাকা আর্থিক পুরষ্কার দিতে চলেছে হিমাচলপ্রদেশ সরকার। তা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী জয়রাম ঠাকুর।

পাশাপশি টোকিও গেমসে ভালো পারফরমেন্সের সুফল পেল ভারতীয় পুরুষ ও মহিলা হকি দল। উন্নতি হল র‌্যাংকিংয়ে। আন্তর্জাতিক হকি ফেডারেশনের নতুন প্রকাশিত ক্রমতালিকায় ব্রোঞ্জ পদকপ্রাপ্ত মনপ্রীত সিংরা রয়েছেন তিন নম্বরে। আর রানি রামপালরা আট নম্বরে। র‌্যাংকিং যে উন্নতিকে কঠোর পরিশ্রমের ফল বলে জানিয়েছেন মনপ্রীত।