অধিনায়ক হিটম্যানকে কৃতিত্ব দিচ্ছেন চাহার

চেন্নাই : চার ওভার। ২৭ রান। চার উইকেট।

তাঁর স্পিনের জাদুতেই মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কামব্যাকের শুরু। বাকিটা এখন ইতিহাস। প্রায় হারতে বসা ম্যাচ জিতে চলতি আইপিএলে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স প্রমাণ করেছে, কেন তারা পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ান দল।

- Advertisement -

নাছোড় মনোভাবের পাশে দুর্দান্ত ক্রিকেট স্কিল, সঠিক সময়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সহজাত দক্ষতা, সতীর্থদের ভরসা দেওয়া- এভাবেই গত রাতে বাজিমাত করেছেন মুম্বই অধিনায়ক রোহিত শর্মা। জয়ের পর রাতের ভার্চুয়াল সাংবাদিক সম্মেলনে হাজির হয়ে ম্যাচের সেরা রাহুল চাহার তাঁর অধিনায়ককে সাফল্যের কৃতিত্ব দিয়েছেন। চাহারের কথায়, রোহিত আমায় বলেছিল, তুমি ভালো বল করছ। এই লাইনটা বজায় রেখে কেকেআর ব্যাটসম্যানদের চাপে ফেলে দাও। তোমার আত্মবিশ্বাস কাজে লাগাও। গেমচেঞ্জার হিসেবে নিজেকে মেলে ধরো।

অধিনায়ক হিটম্যানের এমন কথা তাতিয়ে দিয়েছিল রাহুলকে। যার প্রমাণ তাঁর বোলিং। শুধু চাহার একা নন, একইভাবে ক্রুণাল পান্ডিয়াকেও চাগিয়ে দিয়েছিলেন রোহিত। পাশাপাশি অবিশ্বাস্যভাবে ম্যাচ জয়ের পর মুম্বই অধিনায়ক পুরো দলকে সাফল্যের কৃতিত্ব দিয়ে বলেন, অসাধারণ জয়। পুরো দলের কৃতিত্ব রয়েছে এই সাফল্যে। আমাদের আত্মবিশ্বাসটা অনেক বেড়ে গেল। চাহার, ক্রুণাল থেকে শুরু করে সবাই দুর্দান্ত পারফর্ম করেছে। কেকেআর যেভাবে ১৫২ রানের পথে এগিয়ে যাচ্ছিল, মনেই হয়নি আমরা জিততে পারব। কিন্তু সেটা হয়েছে। আরসিবির বিরুদ্ধে হার দিয়ে শুরু। পরের ম্যাচেই নাইটদের বিরুদ্ধে চাপে পড়ে দুরন্ত কামব্যাক। তারপরও মুম্বই অধিনায়কের মনের মধ্যে রয়েছে দুশ্চিন্তা। সৌজন্যে তাঁর দলের ব্যাটিং।

প্যাট কামিন্স, সাকিব আল হাসান, বরুণ চক্রবর্তীদের বিরুদ্ধে শুরুতে ব্যাট করতে নেমে দারুণ শুরু করেছিল মুম্বই। রোহিত ও সূর্যকুমার যাদব যেভাবে ব্যাট করছিলেন, মনে হচ্ছিল মুম্বই ১৮০-২০০ করে ফেলতে পারে। বাস্তবে দেখা গিয়েছে বিপরীত ছবি। আচমকা ব্যাটিংয়ে ছন্দপতনের পাশে মিডলঅর্ডারের বিপর্যয় ভাবিয়ে তুলেছে মুম্বই অধিনায়ককে। রোহিতের কথায়, প্রথম ম্যাচেও ব্যাটিং ভালো হয়নি। কেকেআর ম্যাচেও একই ঘটনা ঘটেছে। ব্যাটিং নিয়ে সার্বিকভাবে ভাবনার সময় এসেছে আমাদের। ধারাবাহিক ব্যাটিং ব্যর্থতার ছবিটা ভালো নয় একেবারেই।

বিরাট কোহলির আরসিবির বিরুদ্ধে ম্যাচে হারলেও গণ্ডারদের নিয়ে তাঁর ভাবনার কথা দুনিয়ার দরবারে সফলভাবে পৌঁছে দিয়েছিলেন হিটম্যান। গতকালের ম্যাচের পর একইভাবে সমুদ্রকে প্লাস্টিকমুক্ত রাখার আবেদন জানিয়েছেন তিনি। প্লাস্টিকের ব্যবহার দুনিয়াজুড়ে প্রবলভাবে বেড়ে গিয়েছে। অনেক সময় প্লাস্টিক সমুদ্রে গিয়ে পড়ছে। দূষিত হচ্ছে পরিবেশ। এব্যাপারে মানুষকে আরও সচেতন হওয়ার ডাক দিয়েছেন হিটম্যান।