বেআইনি মাটি কাটার বিরুদ্ধে অভিযানে নামলেন মহকুমা শাসক

26

রায়গঞ্জ, ১১ জুনঃ মাটি মাফিয়ারা দীর্ঘদিন ধরে রায়গঞ্জ শহর ও শহরতলি এলাকায় কারবার চালিয়ে যাচ্ছিল। এই নিয়ে অভিযোগ ছিল সাধারণ মানুষের। কিন্তু, শাসকদলের ছত্রছায়ায় থেকে তারা আইনকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে কারবার চালিয়ে যাচ্ছিল বলে অভিযোগ উঠেছিল। শুক্রবার মহকুমা শাসক অর্ঘ্য ঘোষ মাটি মাফিয়াদের হাতেনাতে ধরে ফেললেন।

অভিযোগ, কুলিক নদী তীরবর্তী জমির মাটি কেটে দীর্ঘদিন বিক্রি করছিল মাটি মাফিয়ারা। কিন্তু, হাতেনাতে ধরা যাচ্ছিল না। আজ আচমকাই রায়গঞ্জ ব্লকের কমলাবাড়ি অঞ্চলে মহকুমা শাসক অর্ঘ্য ঘোষের নেতৃত্বে অভিযান চালান। ঘটনাস্থলে কর্নজোড়া ফাঁড়ির পুলিশ মাটি বোঝাই একটি ট্রাক্টর আটক করে।

- Advertisement -

কমলাবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান প্রশান্ত দাস জানান, দীর্ঘদিন ধরেই কুলিক নদী তীরবর্তী জমির মাটি কেটে অন্যত্র বিক্রি করছিল দুষ্কৃতীরা। অনেকবার বাধা দিয়েছি, কিন্তু, তারা কথা শোনেনি। এদিন মহকুমা শাসকের নেতৃত্বে প্রশাসনিক কর্তারা ও পুলিশ  মাটি মাফিয়াদের বিরুদ্ধে অভিযান চালায়। ১ জনকে ট্রাক্টর সহ আটক করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, মাটি মাফিয়াদের অত্যাচারে একদিকে যেমন নদীর গতিপথ আটকে যাচ্ছিল, তেমনই ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছিল বাঁধের অংশ। গ্রামবাসীরা অনেকবার প্রতিবাদ করেছেন। কিন্ত, তাঁদের আপত্তি সত্বেও, মাটি কেটে বিক্রি করছিল মাফিয়ারা।

ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের রেভিনিউ ইন্সপেক্টর সুমিত প্রধান বলেন, অনেক জমির মাটি কেটে ফেলা হয়েছে। এতে নদী ও জমির চরিত্র নষ্ট হচ্ছে। আমরা বিস্তারিত রিপোর্ট সংগ্রহ করে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জানাবো৷