রসায়নে গবেষণায় কেন্দ্রের পেটেন্ট পেল রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়

195

রায়গঞ্জ: রসায়নে গবেষণায় বড় সাফল্য পেল রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়। অ্যারোমেটিক নাইট্রো গ্রুপকে খুব অল্প সময়ের মধ্যে অ্যামাইনো গ্রুপে পরিবর্তন করে পেটেন্ট পেল বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগ। ওই বিভাগের অধ্যাপক ডঃ অমিতাভ মণ্ডল তাঁর সহযোগী তমাল গোস্বামী, সুশমা চক্রবর্তী, অঙ্কনা কর্মকার ও সুরজ মণ্ডলকে সাথে নিয়ে দুই বছর ধরে গবেষণা করে এই ফল পেলেন। এরফলে মাত্র ১৫ মিনিটের মধ্যেই অ্যারোমেটিক নাইট্রো গ্রুপকে অ্যামাইনো গ্রুপে পরিবর্তন করা যাবে। অন্যান্য গবেষণাগারে এই পরিবর্তনের জন্য সময় লাগে প্রায় ছয় ঘণ্টা।

গত বছরের শেষের দিকে রসায়ন বিভাগের তরফে কেন্দ্রের বানিজ্য ও শিল্প মন্ত্রকের এই আবিষ্কারের পেটেন্টের জন্য আবেদন করা হয়েছিল। গত ১৬ জুলাই ইন্ডিয়ান পেটেন্ট গেজেটে ২৪ নম্বরে এটি প্রকাশিত হয়েছে। গত সোমবার তাঁদের এই বিষয়ে জানানো হয়েছে। এই আবিষ্কারের পেটেন্ট নম্বর ২০২১৩১০২৮২৯৫।

- Advertisement -

অধ্যাপক অমিতাভ মণ্ডলের কথায়, প্রায় ২ বছর ধরে কাজ করে অবশেষে সাফল্য এল। এই সংক্রান্ত সমস্ত কাজ রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়েই হয়েছে। তবে, এই সংক্রান্ত ন্যানো যৌগের চরিত্রাঙ্কনের জন্য দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় সহযোগিতা করেছে। সমস্ত বিশ্লেষণ ও পরীক্ষা রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়েই করা হয়েছে বলে জানান তিনি। এই আবিষ্কারের ফলে কোনও রাসায়নিক যৌগে একাধিক গ্রুপ উপস্থিত থাকলেও নির্দিষ্ট একটি গ্রুপই বিক্রিয়ায় অংশগ্রহণ করবে। এই আবিষ্কারের ফলে দেশের যেকোনও রাসায়নিক কোম্পানি বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের সঙ্গে সমঝোতা করতে পারে। খুব শীঘ্রই আন্তর্জাতিক স্তরের জার্নালে এই বিষয়টি প্রকাশ করা হবে। শেষ পর্যায়ের খুব অল্প পরিমাণ কাজ বাকি আছে।

অন্যদিকে, এমন আবিষ্কারের ঘটনায় ভীষণ খুশি রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ডঃ দুর্লভ সরকার জানান, অধ্যাপক অমিতাভ মণ্ডলের তত্ত্বাবধানে যে কাজ হয়েছে তাতে আমরা খুব খুশি। পেটেন্ট এবং রিসার্চ গ্র্যান্ট পাওয়াকে আমরা সবথেকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকি। যেসব শিক্ষকের তত্ত্বাবধানে এধরনের কাজগুলো হচ্ছে তাদের সকলকে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে হার্দিক অভিনন্দন জানাই।