পরিবারে অনটন, পড়ার খরচ তুলতে মূর্তি গড়ছে দশম শ্রেণির ছাত্র

154

দীপঙ্কর মিত্র, রায়গঞ্জ: পাঁচজনের সংসার চালানোর পাশাপাশি দুই ছেলের পড়াশোনার খরচ চালাতে হিমশিম অবস্থা বাদাম বিক্রেতা কাঙ্গাল পালের। তাই নিজের পড়াশোনার খরচ বহন করতে মাসিক দুই হাজার টাকায় কাজ নিয়েছে সুভাষগঞ্জের দশম শ্রেণির ছাত্র বিপ্লব পাল। লকডাউনে পরিবারে আয় বলতে কিছুই ছিল না। তাই মাস চারেক আগে রায়গঞ্জ শহরের কুমোরটুলিতে মাটির প্রতিমা  তৈরির কাজ নেয় সে।মা সিক দুই হাজার টাকা মেলায় একদিকে টিউশনের খরচ উঠছে, অন্যদিকে পরিবারের হাতে অল্প কিছু তুলে দিতে পারছে বিপ্লব।

রায়গঞ্জ ব্লকের ১০ নং মাড়াইকুড়া অঞ্চলের সুভাষগঞ্জে বাড়ি বিপ্লবের। বাবা কাঙ্গাল পাল রায়গঞ্জ শহরে ঘুরে ঘুরে বাদাম বিক্রি করে। করোনার কারণে বিক্রি নেই বললেই চলে। তাই সারাদিন ঘোরাঘুরির পর যে আয় হয় তা দিয়ে পাঁচজনের সংসার খরচ আর পড়ার খরচ চালাতে হিমশিম খেতে হয়। তাই নিজের পড়াশুনো চালিয়ে যেতে এবং পরিবারের পাশে দাঁড়াতে কুমোরটুলিতে কাজ নেয় বিপ্লব। সুভাষগঞ্জ হাই স্কুলে দশম শ্রেণিতে পড়ে সে। প্রতিদিন নিয়ম করে সকাল ৯ টা বাজতেই  বিপ্লব পায়ে হেঁটেই চলে আসে কুমোরটুলিতে। এরপরে  লেগে পরে প্রতিমার কাঠামো তৈরি,কাদামাটি মাটি লেপা সহ অন্যান্য কাজে। বিপ্লব জানায়, প্রতিমা তৈরি করতে ভালো লাগে। তাই এই কাজকে বেছে নিয়েছে। পড়াশোনার খরচ ওঠে পরিবারেও সাশ্রয় হয়। বিপ্লবের পড়াশোনার প্রতি আগ্রহকে কুর্ণিশ জানিয়েছেন শিক্ষকেরা। শিক্ষক বাসব চট্টোপাধ্যায় জানান, তাঁরা বিপ্লবের পাশে আছেন। ।আগামীদিনে তাকে কিভাবে সাহায্য করা যেতে তা নিয়ে আলোচনা করবেন।

- Advertisement -