কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে রেল অবরোধ

107

উত্তরবঙ্গ ব্যুরো: কৃষি আইন ও নতুন বিদ্যুৎ বিল বাতিলের দাবিতে নিউ কোচবিহার রেল স্টেশনে অবরোধ করল কৃষক সমন্বয় সমিতি। বৃহস্পতিবার এই কর্মসূচিতে বামফ্রন্ট ও কংগ্রেসের বিভিন্ন কৃষক সংগঠনগুলি অংশ নেয়। সারা ভারত খেত মজুর ইউনিয়ন, কোচবিহার জেলা কৃষক সমিতি, এআইকেএসসিসি সহ বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা নিউ কোচবিহার স্টেশনে অবরোধে শামিল হন। সেখানে বেলা ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত রেল অবরোধ করা হয়। পদাতিক এক্সপ্রেস নিউ কোচবিহার স্টেশনে আটকে দেওয়া হয়।

কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে রেল অবরোধ| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

- Advertisement -

অবরোধের জেরে তিস্তা-তোর্ষা এক্সপ্রেস নিউ কোচবিহার রেল স্টেশনে সময়মত পৌঁছোতে পারেনি। ফলে দুর্ভোগে পড়েন যাত্রীরা। বেলা ১টায় অবরোধ তুলে নিলে ধীরে ধীরে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে শুরু করে। এদিনের কর্মসূচিতে বামফ্রন্ট ও কংগ্রেসের নেতা দীপক সরকার, অনন্ত রায়, কেশব রায় সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। তাদের তরফে অমিত দত্ত জানালেন, কৃষকদের সমর্থন জানিয়ে তাদের এই কর্মসূচি চলছে। সব জায়গাতেই রেল অবরোধ করা হচ্ছে।

পাশাপাশি, কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে সারভারত কৃষক সভা এবং বামপন্থী শ্রমিক সংগঠনগুলির তরফে বাগডোগরার থানার রাংগাপানিরতে রেল অবরোধ করা হয়। বেলা ১২টা ১৫ মিনিট থেকে অবরোধ শুরু হয়েছে।

অন্যদিকে, কেন্দ্র সরকারের নয়া কৃষি আইন বাতিল, অবিলম্বে লোকাল ট্রেন চালু, পেট্রোল ডিজেল সহ নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি, নবান্ন অভিযানে গিয়ে পুলিশের লাঠির ঘায়ে মৃত যুব কর্মী মইদুল ইসলাম মিদ্যার খুনিদের গ্রেপ্তার সহ একাধিক দাবি নিয়ে এদিন রেল অবরোধে শামিল হল অল ইন্ডিয়া কিষান সংঘর্ষ সমন্বয় কমিটি। এদিন দুপুরে একলাখী জংশন রেল অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখায় তাঁরা। বিক্ষোভকে কেন্দ্র করে যাতে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে তার জন্য মোতায়েন করা হয়েছিল প্রচুর আরপিএফ।

কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে রেল অবরোধ| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal Indiaএছাড়াও রাজ্য পুলিশের বিশাল বাহিনী উপস্থিত ছিল একলাখী জংশনে। এদিনের কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দেন অল ইন্ডিয়া কিষান সংঘর্ষ কমিটির মালদা জেলা আহ্বায়ক প্রণব চৌধুরী, সিপিএম এর সুজিত দাস, আরএসপির দুন্দুভি সাহা, এসইউসিআই এর গৌতম সরকার, আদিবাসী নেতা শুকলাল মুর্মু সহ বাম ছাত্র যুবরা। প্রায় ৩৫ মিনিট  অবরোধ চলার পর আলোচনা চালিয়ে পুলিশ অবরোধ তুলে দেয়। পরে রেল পুলিশ, রাজ্য পুলিশ এবং স্টেশন সুপারের হাতে দাবিপত্র পেশ করেন আন্দোলনকারীরা।

অপরদিকে, বৃহস্পতিবার নাগরাকাটা রেল স্টেশনে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। সারা ভারত কৃষক সভার জলপাইগুড়ি জেলা সাধারন সম্পাদক আশিষ সরকারের নেতৃত্বে এই কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছিল। আশিষ বাবু বলেন, গোটা রাজ্যে ৫৬টি জায়গায় রেল রোকো কর্মসূচি চলছে। কেন্দ্রীয় সরকারের নয়া ৩টি কৃষি আইন বাতিল না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।