পয়লা বৈশাখে শিরুয়া পরবের আগে প্রচার রাজবংশীদের

110

করণদিঘি: পয়লা বৈশাখে প্রতিবছর রাজবংশী সমাজের মানুষ গ্রামে গ্রামে কাদা মেখে শিরুয়া পরব পালন করে। আর এই খেলার প্রচলনটি শতাব্দী প্রাচীন। তার আগে বুধবার সেই উৎসবের প্রচার সারলেন রাজবংশী গাভুর সংঘের সদস্যরা। নতুন বছর শুরুর আগে গ্রামীণ লোক সংস্কৃতির ঐতিহ্য হিসেবে কাদামাটি দিয়ে হোলি খেলার এই অভিনব গ্রামীণ রেওয়াজ তারা ধরে রেখেছে বহু বছর ধরে। এ বছরও তার অন্যথা হয়নি।

পয়লা বৈশাখের সকাল থেকেই বেশিরভাগ গ্রামের রাজবংশী পুরুষ মহিলা সকলে একসঙ্গে মিলে এই শিরুয়া খেলায় মেতে ওঠেন। বৃহস্পতিবার বছরের প্রথম দিন, করণদিঘির গোবিন্দপুর গ্রামে এইরকম একটি প্রাণচঞ্চল দৃশ্য চোখে পড়বে গ্রামজুড়ে। শিরুয়া খেলায় অংশ নেবেন রাজবংশী গাভুর সংঘের সদস্যরা। এই মিশ্র সংস্কৃতির যুগেও রাজবংশীরা নিজেদের সমাজের ঐতিহ্য, সংস্কৃতি ধরে রাখার আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছে করণদিঘির গাভুর সংঘ। রাজবংশী ভাষা, সংস্কৃতি ও ইতিহাস চর্চার কাজ নিরন্তরভাবে করে চলেছে এই সংঘ।

- Advertisement -

সংঘের সম্পাদক মোহনলাল সিংহ জানান, পয়লা বৈশাখের সকালে কাদা দিয়ে শিরুয়া খেলার পর করণদিঘিতে স্নান করে পর মেলা দেখার প্রচলন ছিল আগে। এখন এসব খুব বেশি দেখা যায় না। তবুও যেভাবে বিভিন্ন গ্রামের রাজবংশী সমাজ এই খেলাটিকে বাঁচিয়ে রেখেছে তাতে গাভুর সংগঠনের পক্ষ থেকে তাদের আন্তরিক শুভেচ্ছা।