পাতা তোলা নিয়ে বিরোধ, ঝাঁপ বন্ধ করল চা বাগান

204

রাজগঞ্জ: করোনা পরিস্থিতিতে বন্ধ হয়ে গেল রাজগঞ্জের বরুয়াপাড়া টি এস্টেট। শুক্রবার কর্তৃপক্ষ সাসপেনশন অফ ওয়ার্ক নোটিশ দিয়ে বাগান বন্ধ করে দেন। এদিকে বাগান বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বিপাকে পড়েছেন প্রায় একশো শ্রমিক। শ্রমিকরা সঠিকভাবে কাজ না করায় আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে বলে মালিক পক্ষের অভিযোগ। যদিও কর্তৃপক্ষের অভিযোগ অস্বীকার করেন শ্রমিক প্রতিনিধিরা।

পাতা তোলা নিয়ে বিরোধ, ঝাঁপ বন্ধ করল চা বাগান| Uttarbanga Sambad | Latest Bengali News | বাংলা সংবাদ, বাংলা খবর | Live Breaking News North Bengal | COVID-19 Latest Report From Northbengal West Bengal India

- Advertisement -

রাজগঞ্জের কুকুরজান গ্রাম পঞ্চায়েতের বরুয়াপাড়া চা বাগানে তৃণমূলের শ্রমিক সংগঠন রয়েছে। গতকাল পাতা তোলা নিয়ে উভয়ের মধ্যে ঝামেলা হয়। ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। এরপরই মালিক পক্ষ সাসপেনশন অফ ওয়ার্ক নোটিশ দেন। ওই চা বাগানের শ্রমিক নেতা মোশারফ হোসেন জানান, আগেরদিন ওই চা বাগানের বিভিন্ন সমস্যা আলোচনার মাধ্যমে সমাধানের পর এদিন শ্রমিকরা কাজে আসেন। কিন্তু মালিক পক্ষ এদিন শ্রমিকদের মেশিন দিয়ে পাতা তুলতে বলেন। পর্যাপ্ত শ্রমিক রয়েছে। এছাড়া হাতে পাতা তোলার পর প্রয়োজনে ছুটির দিনেও তাঁরা পাতা তোলার কাজ করতে রাজি। মেশিন দিয়ে পাতা তোলায় আপত্তি জানান তাঁরা। অথচ কর্তৃপক্ষ মেশিন দিয়েই পাতা তোলানোতে অনড় থাকেন। এই নিয়ে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। ঘটনার পর শ্রমিকদের দ্বিসাপ্তাহিক মজুরির টাকা না দিয়ে কর্তৃপক্ষ বাগান বন্ধ করে চলে যায়। শীঘ্রই যাতে বাগান চালু করা হয় সেবিষয়ে জেলা শ্রম দপ্তরে আবেদন করা হবে বলেও ওই শ্রমিক নেতা জানান।

বাগান মালিক সানি গোয়েলের বক্তব্য, করোনা পরিস্থিতিতে ক্ষতি হওয়ার পরও শ্রমিকদের দাবি মেনে কাজের মাঝখানে এক ঘন্টা খাবার ছুটি এবং কাজের সময় কিছুটা কম করা হয়। কিন্তু অনেক বছর থেকে হাতে পাতা তোলার পাশাপাশি মেশিন দিয়ে পাতা তোলা হলেও শ্রমিকরা এদিন মেশিন ব্যবহার করতে রাজি হননি। বাগানে প্রচুর পাতা রয়েছে। সঠিক সময়ের মধ্যে পাতা তোলা না হলে অনেক ক্ষতি হবে। তবুও শ্রমিকরা মেশিন ব্যবহার করতে রাজি না হওয়ায় বাধ্য হয়ে বাগান বন্ধ করতে হয়।