ভগ্নপ্রায় অবস্থায় চেকরমারি সেতু, দুর্ঘটনার আশঙ্কা

67

রাজগঞ্জ: দীর্ঘদিন ধরে ভগ্নপ্রায় অবস্থায় রাজগঞ্জের সন্ন্যাসীকাটা গ্রাম পঞ্চায়েতের চেকরমারি সেতু। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেই সেতু দিয়ে প্রতিদিন যাতায়াত করছে হাজার হাজার মানুষ। অবিলম্বে সেই সেতু মেরামতের দাবি তুলেছেন বাসিন্দারা। গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান মল্লিকা রায় জানান, সেতুটি মেরামত করার আর্থিক সামর্থ্য নেই গ্রাম পঞ্চায়েতের। তাই গত বছরই জলপাইগুড়ি জেলা পরিষদে প্রয়োজনীয় তথ্য দেওয়া হয়েছে। কতটা অগ্রগতি হয়েছে, সেব্যাপারে খোঁজ নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, চেকরমারি ঝোরার ওপর ওই সেতুটি প্রায় ৪০ বছর আগে তৈরি করা হয়। সেতু দিয়ে চেকরমারি ও জামাদারগছ ছাড়াও পার্শ্ববর্তী ঘোষপাড়া ও নবগ্রামের মানুষ যাতায়াত করে। রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে সেতুর একদিকের রেলিং নিশ্চিহ্ন হয়ে গিয়েছে। অন্যদিকের রেলিং যেকোনও সময় ভেঙে পড়ার উপক্রম হয়েছে। পলেস্তরা খসে বেরিয়ে পড়েছে লোহার রড। বেশ কয়েক বছর ধরে ওই অবস্থা হলেও কর্তৃপক্ষের কোনও হেলদোল নেই বলে অভিযোগ।

- Advertisement -

স্থানীয় বাসিন্দা রঞ্জিত মণ্ডল, জিতেন সরকাররা জানান, ওই সেতু দিয়ে প্রতিদিন প্রায় দুই হাজার মানুষ যাতায়াত করেন। এছাড়া চা বাগানের যানবাহনও চলাচল করে। সেতুটি যে দীর্ঘদিন ধরে বেহাল তা স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্য, প্রধান থেকে শুরু করে বিধায়কও জানেন। কিন্তু সংস্কারের কোনও উদ্যোগ লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। যেকোনও সময় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে এই আশঙ্কা করেও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে। সেতুটি ভেঙে পড়লে কয়েকটি গ্রামের মানুষ যাতায়াতের চরম সমস্যায় পড়বে। স্থানীয় পঞ্চায়েত সদস্যের প্রতিনিধি হরেনচন্দ্র দাস জানান, গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানকে বিষয়টি জানানোর পর ছবি তুলে নিয়ে গিয়েছেন। তারপর আর তাঁরা কিছু জানা নেই।