বিধায়ক পদে ইস্তফা রাজীবের, বিজেপিতে যোগদান কি সময়ের অপেক্ষা?

120
ছবিটি সংগৃহীত

কলকাতা: গত ১৯ ডিসেম্বর মেদিনীপুরে অমিত শায়ের সভায় বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেতা শুভেন্দু অধিকারি। তাঁর সঙ্গেই বিজেপিতে যোগ দেন ছয় তৃণমূল বিধায়কও। সেই আবহেই ফের ৩১ জানুয়ারি রাজ্যে আসছেন অমিত শা। হাওড়ার ডুমুরজলাতে সভা করার কথা রয়েছে তাঁর। সেই মঞ্চেই তৃণমূলের আর কে কে যোগ দেবে সেই নিয়েই রাজ্যে শুরু হয়েছে জল্পনা। তালিকায় রয়েছে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়, বৈশালী ডালমিয়া, প্রবীর ঘোষালের মতো নামও।
শুক্রবারই বিধায়ক পদ ও দল থেকে ইস্তফা দিয়েছেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। বিধানসভায় গিয়ে স্পিকারের সঙ্গে দেখা করে ইস্তফা দেন তিনি। দলীয় পদ থেকে পদত্যাগের জন্য মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দেন তিনি। পাশাপাশি ইস্তফাপত্রের একটি কপি সুব্রত বক্সিকেও পাঠানো হয়েছে। রবিবার অমিত শাহের মঞ্চে দেখা যেতে পারে তাঁকে। আর সেখানেই বিজেপিতে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা ডোমজুড়ের তৃণমূল বিধায়ক রাজীবের।তবে তিনি জানিয়েছেন আগামীকাল নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানাবেন। সম্প্রতি রাজীবকে সমর্থন করে দলবিরোধী মন্তব্য করায় বৈশালিকে বহিস্কার করে তৃণমূল। বৈশালী বলেছিলেন, ‘তৃণমূল দলটা উইপোকায় ভরে গিয়েছে।’ তারপর থকেই জোর গুঞ্জন রবিবার তিনিও নাম লেখাচ্ছেন গেরুয়া শিবিরেই। রবিবার অমিত শাহের হাত ধরে বিজেপিতে যোগ দিতে পারেন উত্তরপাড়ার বিধায়ক প্রবীর ঘোষালও। তবে এটা নিশ্চিত যে বৈশালি ডালমিয়া বিজেপিতে যোগ দিতে চলেছেন। হাওড়ার প্রাক্তণ মেয়র তথা বিশিষ্ট চিকিৎসক রথীন চক্রবর্তী সরাসরি বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা মুখে না বললেও যথেষ্ট ইঙ্গিত দিয়েছেন।