অনুব্রতর ‘ঠ্যাং ভাঙা’র হুঁশিয়ারির জবাবে যা বললেন রাজু

172

রামপুরহাট: ২০২১-এ রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচন। ভোটকে পাখির চোখ করে প্রায় প্রতিদিনই রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় তৃণমূল-বিজেপির সভা, মিছিল অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সভায় একে অন্যের তীব্র সমালোচনা করছেন দুই দলের নেতারা। বুধবারও একই ছবি দেখা গেল বীরভূমে। রাজু-অনুব্রতর হুঁশিয়ারি পালটা হুঁশিয়ারিতে রীতিমতো সরগরম রাজ্য রাজনীতি।     

এদিন ময়ূরেশ্বরের লোকপাড়ার সভায় বিজেপি নেতা রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে আগাগোড়া আক্রমণাত্মক ছিলেন। তিনি বলেন, ’তোমরা আমাদের কর্মীর একটি ঠ্যাং ভেঙেছো। আমরা তোমাদের দুটো ঠ্যাং ভেঙে দেব। যে যে ভাষা বোঝে তাকে সেই ভাষাতেই বোঝাতে হবে। এই মাটিতেই বিজেপির ছেলেরা খেলবে। ভয়ঙ্কর খেলা হবে। হাতে বড় বড় লাঠি রাখুন। অনুব্রত মণ্ডলের গুণ্ডার দল খেলতে এলে মেরে ঠ্যাং ভেঙে দিন। কাউকে ছাড়বেন না। বীরভূমে ১১-০ করতে হবে।‘

- Advertisement -

তিনি আরও বলেন, ‘দিদি রাম নাম শুনে ক্ষেপে যাচ্ছেন। গাড়ি থেকে নেমে যাচ্ছেন, মঞ্চ ছাড়ছেন। দিদি রাম নাম শুনে এবার নবান্ন ছেড়ে পালিয়ে যাবেন। সারা বাংলাজুড়ে যেভাবে রাম নামের ধ্বনি উঠছে, তাতে দিদি বাংলা থেকে পালিয়ে যাবেন। পিসি বলছেন, চার পাঁচটি রাজধানী করতে হবে। আর ভাইপো বলছেন, ফাঁসিতে ঝুলবেন। আমরা বলছি, পিসি আর ভাইপোর ইচ্ছে পূরণ হবে। ভাইপো যাবেন ফাঁসিতে আর পিসি যাবেন কাশিতে।‘

অন্যদিকে, বিজেপিকে উদ্দেশ্য করে দুবরাজপুরে দলীয় সভায় অনুব্রত মণ্ডল পালটা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘ঘর থেকে বের হতে দেব না। বের হলে ঠ্যাং ভেঙে দেব। পারলে কিছু করে নেবেন। সাবধান।‘