উত্তরবঙ্গের চা শিল্পের ওপর নতুন বই লিখলেন রাম অবতার শর্মা

437

শুভজিৎ দত্ত, নাগরাকাটা: উত্তরবঙ্গের চা শিল্পের ওপর নতুন বই লিখলেন রাম অবতার শর্মা। শনিবার মহাষ্টমীর দিন ইংরেজিতে লেখা তাঁর ‘A Glimpse Of Tea’ নামে বইটি আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশিত হয়। এই নিয়ে চা বাগান বিশেষজ্ঞের চা শিল্পের ওপর মোট ৭টি বই প্রকাশিত হল।

নতুন বইটিতে লেখক উত্তরের চা শিল্পের বিবর্তন, চা শ্রমিকদের মধ্যবিত্তায়ন, চায়ের স্বাস্থ্যগত গুণাগুন, সহ আরও নানা বিষয়ের ওপর আলোকপাত করেছেন। ১১টি অধ্যায়ে বিভক্ত বইটির বেশিরভাগ আলোচনাই মৌলিক এবং যাবতীয় তথ্য প্রাথমিক সূত্রের (প্রাইমারি সোর্স অফ ডাটা) ওপর ভিত্তি করে রচিত। শ্রী শর্মা বলেন, ‘ভবিষ্যৎ প্রজন্ম যদি এই বইয়ের মাধ্যমে উত্তরবঙ্গের চা শিল্পের নানা দিক জেনে সামান্যতমও উপকৃত হয় তবে পরিশ্রম সার্থক হবে বলেই মনে করি।’

- Advertisement -

এর আগে রাম অবতার শর্মা চা কেন্দ্রিক যে ৬টি বই লিখেছেন তার মধ্যে বাংলা ভাষায় রয়েছে ৩টি। সেগুলি হল ‘চা-জানা অজানা’, ‘চায়ের সাতকাহন’ ও ‘চায়ের অতীত-বর্তমান ও ভবিষ্যৎ’। ইংরেজিতে লেখা ৩টি বই ছিল ‘থ্রী পিস অফ টি’, ‘হিউম্যানস ইন ইন্ডিয়ান টি’ এবং ‘হিস্ট্রি অফ টি’। ওই সমস্ত বই বর্তমানে দেশের একাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে চা বিষয়ের ওপর পড়ানোর কাজে ব্যবহার করা হয়। চা শিল্প ছাড়াও উত্তরবঙ্গের নানা জনজাতি, চা সমাজ, চা সংস্কৃতি, চা অর্থনীতির ওপর কখনও একাই আবার কখনও যৌথভাবে আরও ১৬টি বই লিখেছেন নানা সময়ে।

১৯৭৭ সাল থেকে চা শিল্পের সঙ্গে নিবিড়ভাবে জড়িত রাম অবতার শর্মা রাজ্য সরকারি সংস্থা পশ্চিমবঙ্গ চা উন্নয়ন নিগম লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার হিসেবে অবসর গ্রহণের পর এখনও চা শিল্পের সঙ্গেই জড়িত। একদা মালিক পরিত্যক্ত নাগরাকাটার হিলা চা বাগান সরকারি ওই সংস্থার আওতায় আসার পর তিনি সেখানে দীর্ঘদিন ম্যানেজারের দায়িত্ব সামলেছেন। ওই বাগানটি তাঁর সুযোগ্য নেতৃত্বে একসময় লাভজনক সরকারি সংস্থাতেও পরিণত হয়। বর্তমানে রাম অবতারবাবু চা মালিকপক্ষের সংগঠন আইটিপিএ-র ডুয়ার্স শাখার সম্পাদক হিসেবে কর্মরত। তার আগে দায়িত্ব সামলেছেন আরেকটি সংস্থা টি অ্যাসোসিয়েশন অফ ইন্ডিয়ার (টাই) ডুয়ার্স শাখার সম্পাদকেরও। দার্জিলিং টি রিসার্চ অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ টি ম্যানেজমেন্ট এবং বেঙ্গালুরুর আরেকটি প্রতিষ্ঠান আইআইপিএম-এর অবৈতনিক ফ্যাকাল্টি মেম্বার হিসেবেও তিনি চায়ের ওপর পড়াশোনার প্রচার প্রসারে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।