যোগ দিবসে মিলবে দুষ্প্রাপ্য ডাক টিকিট

110

রামপুরহাট: আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে মিলবে বাতিল হয়ে যাওয়া দুষ্প্রাপ্য ডাক টিকিট। যে কেউ জেলার প্রধান ডাকঘর থেকে ওই টিকিট সংগ্রহ করতে পারবেন। এছাড়া এবার যোগ দিবসে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হল বীরভূম জেলাকে। সেই জন্য জেলা ডাক বিভাগের তরফে প্রচার শুরু করা হয়েছে। কোথাও প্রচারপত্র ছাপিয়ে আবার কোথাও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রচার শুরু করা হয়েছে। ওই বিশেষ দিনে জেলার বিভিন্ন প্রান্তের প্রাথমিক স্তরের তপশিলি জাতি এবং উপজাতির ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে ‘টি শার্ট’ দেওয়ার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

সোমবার আন্তর্জাতিক যোগ দিবস। দেশের ১১৭টি জেলা ডাকঘরে এই দিনটি বিশেষভাবে পালন করা হবে। তবে এবার দেশের মধ্যে বিশেষভাবে বেছে নেওয়া হয়েছে বীরভূম জেলাকে। কারণ দেশের মধ্যে পিছিয়ে পড়া হিসাবে চিহ্নিত বীরভূম। এই জেলার মানুষকে যোগার উপর উদ্বুদ্ধ করতেই বীরভূমকে বেছে নেওয়া হয়েছে। ওই দিন করোনাবিধি মেনে প্রতিটি ডাকঘরে ডাককর্মী এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যরা অফিসে যোগ দিবস পালন করবেন। ডাক বিভাগের তরফে বিভিন্ন মাধ্যমে যোগার উপর সচেতনতা গড়ে তুলতে ওই দিন সাধারণ মানুষকে বাড়িতে বসে যোগ দিবস পালন করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

- Advertisement -

জেলা ডাক বিভাগের সুপারিন্টেনডেন্ট মৃগাঙ্ক মাইতি বলেন, ‘দেশের মধ্যে পিছিয়ে পড়া জেলা হিসাবে চিহ্নিত হয়েছে বীরভূম। তাই এবার বীরভূম জেলাকে যোগ দিবসে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। ওই দিন ডাক বিভাগের বাতিল হওয়া দুষ্প্রাপ্য টিকিট বিক্রি করা হবে। যারা শখে পুরোনো টিকিট সংগ্রহ করে রাখেন তাঁরা তা কেনার সুযোগ পাবেন। এছাড়া যে কেউ নিজের প্রিয়জনের ছবি দিয়েও ডাক টিকিট ছাপাতে পারেন। এই সুযোগ আগের মতোই পাবে জেলার মানুষ। জেলার প্রত্যন্ত এলাকায় তপশিলি জাতি ও উপজাতি ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে ডাক বিভাগের লোগো দেওয়া জামা বিতরণ করা হবে।’

রামপুরহাট ডাক বিভাগের পোস্ট মাস্টার কালাম পটুয়া বলেন, ‘যোগ দিবসকে সমস্ত মানুষের মধ্যে পৌঁছে দিতে আমরা বিভিন্নভাবে প্রচার শুরু করেছি। সোশ্যাল মাধ্যম ছাড়াও প্রচারপত্র বিতরণ করে মানুষকে যোগার গুরুত্ব প্রচার করা হচ্ছে। তবে অবশ্যই বাড়িতে বসেই যোগ দিবসের পালনের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।’