রতুয়ার নির্দল প্রার্থী পায়েলের রোড শো

70

সামসী: রতুয়ার নির্দল প্রার্থী পায়েল খাতুন মালদা জেলা পরিষদের স্বাস্থ্য কর্মাধ্যক্ষ। বৃহস্পতিবার দেবীপুর ও চাঁদমুনি-২ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় রোড শো করলেন তিনি। প্রার্থী জানান, এলাকায় গিয়ে প্রচুর মানুষের সাড়া পাচ্ছেন তিনি। মানুষ দু’হাত খুলে ভোট দিতে চাইছেন। জয়ের বিষয়ে আশাবাদী পায়েল। তিনি সাফ জানিয়েছেন, তাঁর লড়াই হবে মূলত বিজেপির সঙ্গে। তৃণমূল ও কংগ্রেসকে কোনও ফ্যাক্টর মনে করেন না তিনি।

জানা গিয়েছে, পায়েল খাতুন নির্দল প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ানোয় কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে বর্ষীয়ান তৃণমূল নেতা তথা বিদায়ী বিধায়ক সমর মুখোপাধ্যায়ের। শেখ ইয়াসিন শাসকদলে থাকাকালীন একসময় রতুয়া-৪৮ আসনটি তৃণমূলের শক্ত ঘাঁটি ছিল। স্ত্রী নির্দল প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়ে যাওয়ায় সব হিসেব ওলটপালট হয়ে যায়। কিন্তু ইয়াসিন শাসকদলের টিকিট না পাওয়ায় তাঁর অনুগামীরা ভেঙে পড়েন। শাসকদলের একটা অংশ চলে যায় পায়েলের দিকে। এদিকে একাধিক দাবিদার জোটের প্রার্থীপদ না পেয়ে নির্দল প্রার্থী পায়েলকে সমর্থন জুগিয়ে যাচ্ছেন কংগ্রেস ও সিপিএমের অনেক নেতাই। যদিও রতুয়া-৪৮ বিধানসভার জোটের পর্যবেক্ষক অধ্যাপক ডাঃ সাইদুর রহমান বিষয়টি মানতে নারাজ। তিনি জানান, রতুয়ায় জোটই জিতবে।

- Advertisement -

এছাড়াও পায়েল খাতুন শাসকদলের প্রাক্তন জেলা সম্পাদক তথা দাপুটে নেতা শেখ ইয়াসিনের সহধর্মিণী। রতুয়ায় এবার শাসকদলের প্রার্থীর অন্যতম দাবিদার ছিলেন শেখ ইয়াসিন। শেখ ইয়াসিন শাসকদলের টিকিটে তাঁর স্ত্রী পায়েলকে দাঁড় করাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু দিদি শেষমেষ রতুয়ার বর্ষীয়ান নেতা তথা বিদায়ী বিধায়ক সমর মুখোপাধ্যায়ের ওপরই আস্থা রাখেন। এদিকে, টিকিট না পেয়ে শেখ ইয়াসিন তাঁর দলবল নিয়ে বিজেপিতে যোগদান করেন। তবে তৃণমূল কংগ্রেসের রতুয়া-১ ব্লক সভাপতি ফজলুল হক জানান, কে কি বলল তাতে কিছু যায় আসে না। রতুয়ায় শাসকদলই জিতবে।