ফেসবুকে দলের নেতাকে ‘রাবণ’ কটাক্ষ, তোলপাড় তৃণমূলে

379

ফুলবাড়ি: ফেসবুক পোস্টে নাম না করে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী বিনয়কৃষ্ণ বর্মণকে ‘রাবণ’ বলে কটাক্ষ করে বিজেপি ঘনিষ্টতার অভিযোগ আনলেন তৃণমূল কংগ্রেসের শিক্ষক সংগঠনের মাথাভাঙ্গা ২ ব্লক কমিটির প্রাক্তন সভাপতি মহেশচন্দ্র বর্মন। রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা কোচবিহার জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে শনিবার ফেসবুকে তিনি জানান, ‘রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা কুচবিহার জেলা তৃণমূলের চেয়ারম্যান তাঁর দুইজন সাগরেদকে নিয়ে রাবণের ছদ্মবেশে ফুলবাড়িতে কিছু পঞ্চায়েত সদস্য ও সদস্যাদের হাইজ্যাক করে মাদারিহাট লজে নিয়ে রাখেন। উদ্দেশ্য ছিল প্রধানের বিরুদ্ধে অনাস্থা জানিয়ে তৃণমূলের গ্রাম পঞ্চায়েতকে বিজেপির হাতে তুলে দেওয়া। সরকারি নিয়মে সেটা সফল না হওয়ায় যে পঞ্চায়েত সদস্য, সদস্যাদের তিনি বিজেপিতে যাওয়ার জন্য উস্কিয়েছেন, এবার তাঁরা বিজেপিতে যাচ্ছেন। কি লজ্জা কি লজ্জা, তিনি দলের ক্ষতি করে আবার দলের জেলা সভাপতি হওয়ার জন্য উঠে পড়ে লেগেছেন। বিষয়টি দিদির দরবারে পাঠাচ্ছি। জয় বাংলা।’ যদিও এই পোস্টে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা বলা হলেও বাস্তবে এই পঞ্চায়েত সদস্যরা বিজেপিতে যোগ দিয়েও ফের তৃণমূলে ফিরে এসেছেন। বর্তমানে এই পঞ্চায়েতটি তৃণমূলের দখলেই রয়েছে।

যদিও এই পোস্টের পর রাজ্যের প্রাপ্ত মন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেসের কোচবিহার জেলার চেয়ারম্যান বিনয়কৃষ্ণ বর্মন বলেন, ‘গত লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পর মহেশ চন্দ্র বর্মনের কারণেই ফুলবাড়ি গ্রাম পঞ্চায়েত তৃণমূল কংগ্রেসের হাতছাড়া হয়েছিল। তৃণমূল কংগ্রেসের ১৯ জন পঞ্চায়েত সদস্যের মধ্যে একমাত্র বৃন্দাবন মণ্ডল ছাড়া বাকিরা বিজেপিতে যোগ দেন। তাঁদের মূল কান্ডারি ছিলেন মহেশচন্দ্র বর্মন। পরবর্তী সময়ে আমি নিজে উদ্যোগ নিয়ে গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান সহ বাকি পঞ্চায়েত সদস্যদেরকে তৃণমূল কংগ্রেসে ফিরিয়ে আনি। তাই আসল তৃণমূল কে? সেটা এখানেই বোঝা যাচ্ছে।’ ফুলবাড়ির ৪ নম্বর বুথের পঞ্চায়েত সদস্য বৃন্দাবন মণ্ডল বলেন, ‘আমি তৃণমূল কংগ্রেসে ছিলাম, আছি, থাকব। মহেশচন্দ্র বর্মন এদিন তাঁর ফেসবুকে যে পোস্ট করেছেন তা ভিত্তিহীন। আমরা এলাকা ছেড়ে কেউ কোথাও যাইনি। ফুলবাড়িতে ধনঞ্জয় অধিকারী প্রধান হওয়ার পর থেকে ১০০ দিনের কাজ সহ কোনও উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে না। ফুলবাড়িতে উন্নয়নমূলক কাজ নাহলে প্রধানকে অপসারণের দাবি চলতে থাকবে।’ এদিকে মহেশ চন্দ্র বর্মন বলেন, ‘আজকে যেটা ফেসবুকে পোস্ট করেছি। সেটা আগেই করতে চেয়েছিলাম।‘

- Advertisement -